ঘরে বসে অনলাইনে টাকা ইনকাম করার সেরা ১০ টি উপায়

ঘরে বসে অনলাইনে টাকা ইনকাম করার সেরা উপায় গুলো কি কি?

বন্ধুরা, আজকের আর্টিকেলের মাধ্যমে আমরা অনলাইনে ইন্টারনেট থেকে টাকা আয় করার সেরা ১০ টি উপায়ের বিষয়ে জানবো।

অনলাইনে টাকা ইনকাম

Best ways to earn money online.

এমনিতে ইইন্টারনেট থেকে টাকা আয় করার উপায় অনেকে রয়েছে।

আজকাল আমরা প্রত্যেকেই ঘরে বসে ইন্টারনেট থেকে অনলাইনে টাকা আয় করার উপায়গুলোর বিষয়ে জেনে নিতে চাই।

কেননা বর্তমান সময়ে প্রায় প্রত্যেকেরই অনলাইন থেকে টাকা আয় আয় করার দিকে রুচি রয়েছে।

তাছাড়া বর্তমানে অনেকেই ঘরে বসে থেকে ইন্টারনেট থেকে ভালো পরিমাণে টাকা ইনকাম করছেন।

আপনি যদি অনলাইনে থেকে টাকা ইনকাম করতে চাইছেন তাহলে আপনিও প্রতি মাসে ভালো পরিমাণে টাকা আয় করতে পারবেন।

এমন অনক কাজ রয়েছে যেগুলো আপনি আপনার হাতে থাকা স্মার্টফোন দিয়েও করতে পারবেন। আর আপনার যদি একটি কম্পিউটার বা ল্যাপটপ রয়েছে তাহলে আপনার প্রচুর সুবিধা রয়েছে অনলাইনে কাজ করার।

আপনার হাতে থাকা ফাকা সময়ে (part time) আপনি কাজ করতে পারবেন। সেই সাথে যদি কিছু অর্থ উপার্জন করা যায় তাহলে সেটা আর্থিকভাবে অনেক উপকার হয়ে থাকে।

আর আজকে আমি নিচে যে উপায়গুলো সম্পর্কে বলবো এই কাজগুলো করার জন্য আপনার তেমন কোন বেশি দক্ষতা বা পড়ালেখা থাকার প্রোয়োজন হবে না।

কাজগুলো আপনি ইন্টারনেট থেকেই ভালো করে শিখে নিতে পারবেন।

এগুলো অনলাইন ইনকাম (online income) করার সবচেয়ে কার্যকর উপায়।

সারা বিশ্বের মানুষ এ কাজগুলো করে অনলাইন ইনকাম করছেন।

তো চলুন জেনে নেওয়া যাক 10 Best ways to earn money online সম্পর্কে।

ঘরে বসে অনলাইন টাকা ইনকাম করার উপায় গুলো – (সেরা ১০ টি)

বন্ধুরা আমি নিচে অনলাইন টাকা ইনকাম করার যে উপায়গুলোর বিষয়ে বলবো সেগুলো অবশ্যই কার্যকর উপায়।

কিন্তু আপনাকে অবশ্যই প্রথমে কাজগুলো ভালোভাবে শিখে নিতে হবে। যখন আপনি ভালোমত শিখে যাবেন তখন সঠিক গাইডলাইন অনুযায়ি করা শুরু করে দিন।

বর্তমানে আপনি গুগল এবং ইউটিউব থেকে যেকোন বিষয়ে ভালো জ্ঞান অর্জন করতে পারবেন এবং শিখতে পারবেন।

10 Best Ways to Earn Money Online (Online earning)

নিচে আমি online earning এর সেরা উপায়গুলো আলোচনা করছি।

আপনি এক এক করে সব কয়টি পয়েন্ট ভালোভাবে পড়ুন।

১. অনলাইন ব্লগ থেকে টাকা ইনকাম

ঘরে বসে অনলাইনে টাকা ইনকাম করার সবচেয়ে লাভজনক উপায় হলো ব্লগিং। ব্লগিং মানে হলো ব্লগ বা ওয়েবসাইট খুলে সেখানে লেখালেখি করা৷

আপনি চাইলে ঘরে বসে ব্লগিং করে মাসে ভালো পরিমাণে টাকা ইনকাম করতে পারবেন৷

ব্লগিং করার জন্য আপনাকে প্রথমে একটি টপিক নির্বাচন করতে হবে যেটির উপরে আপনি ব্লগিং করবেন৷ আ

যে বিষয় বা টপিকের উপরে ব্লগিং বা লেখালেখি করতে চান সে বিষয়ে আপনার প্রচুর জ্ঞান বা ধারণা থাকতে হবে৷ কারণ ব্লগিং করতে হলে যেকোন একটি নিসের উপর আপনার ওয়েবসাইট বা ব্লগে প্রতিনিয়ত আর্টিকেল লিখতে হবে৷

তাই সে বিষয়ে যদি আপনার প্রচুর পরিমাণে অভিজ্ঞতা বা জ্ঞান না থাকে তাহলে আপনি আপনার ব্লগে নিয়মিত (regular) আর্টিকেল publish করতে পারবেন না৷

ব্লগ থেকে কিভাবে অনলাইন টাকা ইনকাম করা যায়?

প্রথমে আপনাকে একটি ব্লগ ওয়েবসাইট তৈরি করে নিতে হবে৷ আপনি চাইলে নিজেই একটি ওয়েবসাইট বানাতে পারবেন৷

আর যদি না পারেন তাহলে গুগলে সার্চ করলে অনেক tutorial আপনি পেয়ে যাবেন৷

ওয়েবসাইট খুলে নেওয়ার পর আপনার ওয়েবসাইটকে ভালোভাবে ডিজাইন করে নিতে হবে৷

এরপর আপনার বিষয়েব উপর regular আর্টিকেল লিখতে হবে৷

যখন আপনার ব্লগে কিছু পরিমাণ আর্টিকেল লিখা হয়ে যাবে, যদি আপনার আর্টিকেল অনেক ভালো বা SEO Friendly হয় এবং কিওয়ার্ড রিসার্চ করে লেখা হয় তাহলে কিছুদিন পর আপনার ব্লগে সার্চ ইঞ্জিন যেমন গুগল থেকে কিছু পরিমাণে ট্রাফিক আসা শুরু করবে৷

তাহলে এরপর আপনার ব্লগে Google AdSense এর জন্য আবেদন করতে হবে৷ যদি আপনার ব্লগের সবকিছু ঠিক থাকে তাহলে Google Adsense আপনার ব্লগকে অনুমোদন করে দিবে৷

এরপর আপনার ব্লগের আর্টিকেলের ভিতরে Google AdSense এর বিজ্ঞাপন (advertisement) দেখাতে পারবেন৷

এরপর যখন আপনার ব্লগের পাঠক (reader) রা আপনার ব্লগে আর্টিকেল পড়তে এসে আর্টিকেলে দেখানো সেই সকল বিজ্ঞাপনে ক্লিক করবে তার বিনিময়ে আপনার গুগল এডসেন্স একাউন্টে কিছু পরিমাণে টাকা যোগ হয়ে যাবে৷

এভাবে আপনি ব্লগিং করে ঘরে বসে অনলাইন থেকে টাকা আয় করতে পারবেন৷

অনলাইনে টাকা ইনকাম করার একটি লাভজনক ক্যারিয়ার অপশন হিসেবে ব্লগিং আপনার সামনে রয়েছে৷

আপনি চাইলে ব্লগিং করে ক্যারয়ার গড়তে পারেন৷ প্রথমে আপনি যখন part time ব্লগিং করে কিছু পরিমাণ টাকা ইনকাম করতে পারবেন। এরপর চাইলে আপনি ব্লগিংকে আপনি full time ক্যারিয়ার হিসেবে নিয়ে কাজ করতে পারবেন৷

তাই আপনি যদি ব্লগিং করতে চান তাহলে এখনেই অনলাইন এবং ইন্টারনেট সম্পর্কে প্রচুর জ্ঞান অর্জন করা শুরু করে দিন৷

২. ইউটিউব থেকে টাকা আয়

বর্তমানে অনলাইন থেকে ইনকাম সবচেয়ে সহজ মাধ্যম হলো ইউটিউব৷ আপনি একটি ইউটিউব চ্যানেল খুলে সেখান থেকে টাকা আয় করতে পারেন৷

বাংলাদেশেরের এমন অনেক ইউটিউবার রয়েছেন যারা কেবল ইউটিউব থেকে মাসে লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করছেন৷ তারা ইউটিউবকে তাদের ক্যারিয়ার হিসেবে বেছে নিয়েছেন৷

তাই আপনিও ইউটিউব থেকে অনেক সহজেই ইউটিউব থেকে মাসে ভালো পরিমাণে টাকা ইনকাম করতে পারবেন৷

কিভাবে ইউটিউব থেকে টাকা আয় করা যায়?

ইউটিউব থেকে টাকা আয় করার জন্য প্রথমে আপনাকে একটি ইউটিউব চ্যানেল খুলতে হবে৷ এরপর আপনার চ্যানেলে রেগুলার ভিডিও আপলোড করতে হবে৷

মনে রাখবেন, আপনি যে বিষয়ে ভালো পারেন অথবা যে বিষয়ের উপর আপনার ভালো অভিজ্ঞতা বা জ্ঞান রয়েছে সে বিষয়ে আপনি ভিডিও আপলোড করতে পারেন এবং আপনার চ্যানেল সে বিষয়ের উপর খুলবেন৷

কারণ, আপনার চ্যানেলটি যে ক্যাটাগরির হবে শুধুমাত্র সেই related ভিডিও আপনাকে আপলোড করতে হবে৷

তাই আপনি যে ক্যাটাগরি ভালো জানেন না যদি সেই ক্যাটাগরিতে আপনার চ্যানেল খুলেন তাহলে আপনি regular আপনার চ্যানেলে ভিডিও দিতে পারবেন না৷

মনে করুন, আপনার যদি technology সম্পর্কে ভালো জ্ঞান রয়েছে তাহলে আপনি technology বিষয়ের উপর আপনার চ্যানেলটা ক্রিয়েট করতে পারেন৷

আপনি যদি গেম ভালো খেলতে পারেন বা গেম ভালো খেলেন তাহলে আপনি গেমিং চ্যানেল খুলে সেখানে গেমিং ভিডিও আপলোড করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন৷

একটি ইউটিউব চ্যানেল থেকে সাধারণত ইনকাম করা যায় ইউটিউব মনিটাইজেশনের মাধ্যমে৷

ইউটিউব মনিটাইজেশনের মাধ্যমে ইউটিউব চ্যানেলে গুগল এডসেন্সের‌ (Google AdSense) দ্বারা ভিডিওতে বিজ্ঞাপন দেখানো হয়৷ সেই বিজ্ঞাপন দেখানোর মাধ্যমে ইউটিউব চ্যানেলের মালিক টাকা আয় করতে পারে৷

যখন আপনার চ্যানেলে ভিডিও আপলোড করতে থাকবেন, এরপর একটা সময়ে গিয়ে আপনি ইউটিউব মনিটাইজেশনের জন্য আবেদন করতে পারবেন৷

ইউটিউব চ্যানেল মনিটাইজেশনের জন্য আপনার চ্যানেলে কিছু শর্ত পূরণ করতে হবে৷

যেমন, আপনার চ্যানেলে লাস্ট এক বছরে ১ হাজার সাবস্ক্রাইবার এবং ৪ হাজার ঘন্টা ওয়াচ টাইম আপনার চ্যানেলের দ্বারা পূরণ করতে হবে৷

তবেই আপনি আপনার চ্যানেলে মনিটাইজেশনের জন্য আবেদন করতে পারবেন৷ আপনার চ্যানেল এপ্রুভ হয়ে গেলে ভিডিওতে বিজ্ঞাপন দেখানোর মাধ্যমে আপনি ইউটিউব থেকে টাকা আয় করতে পারবেন৷

বন্ধুরা, বর্তমানে অনলাইনে টাকা ইনকামের কিন্তু সবচেয়ে সহজ এবং লাভজনক মাধ্যম হলো ইউটিউব এবং ব্লগিং৷

এ কাজগুলো করার জন্য আপনার অবশ্যই creativity থাকা লাগবে৷ কারণ যাদের মধ্যে ক্রিয়েটিভিটি বেশি তারাই তারাতারি এ কাজ গুলোতে সফল হতে পারেন৷

৩. ফেসবুক পেজ থেকে আয়

বন্ধুরা অনলাইন থেকে টাকা ইনকামের আরেকটি সহজ মাধ্যম হলো ফেসবুক৷ আমরা প্রতিদিন সোশ্যাল মিডিয়া হিসেবে ফেসবুক ব্যবহার করি৷

কিন্তু আপনি কি জানেন যে ফেসবুক থেকেও অনলাইন টাকা আয় করা যায়৷ আপনি ফেসবুক পেজ থেকে টাকা আয় করতে পারবেন৷

কিভাবে ফেসবুক পেজ থেকে টাকা ইনকাম করা যায়?

ফেসবুক পেজ থেকে অর্থ উপার্জন করার দুইটি উপায় রয়েছে৷ যেমন, Facebook Instant Article এবং Facebook In Stream Ads.

ফেসবুক ইন্সটান্ট আর্টিকেল থেকে টাকা আয়

আপনি যদি ফেসবুক ইনস্টান্ট আর্টিকেলের মাধমে টাকা আয় করতে চান তাহলে আপনার একটি একটি ব্লগ বা ওয়েবসাইট থাকা লাগবে৷

আপনার ব্লগের আর্টিকেলগুলোকে আপনার ফেসবুক পেজে শেয়ার করতে হবে৷

এরপর যখন আপনার ফেসবুক পেজে Facebook Instant Article এর জন্য আবেদন করবেন, তখন যদি আপনার পেজ ফেসবুক কর্তৃক অনুমোদন হয়ে যায় তাহলে আপনার ফেসবুক পেজে আপনার ব্লগের যে আর্টিকেলগুলো আপনি শেয়ার করেছেন সেই আর্টিকেলগুলো পড়ার জন্য যদি কেউ তার উপর ক্লিক করে,

তাহলে তাকে আর্টিকেলের ভিতর ফেসবুকের তরফ থেকে কিছু বিজ্ঞাপন দেখানো হবে যার মাধ্যমে আপনি টাকা ইনকাম করতে পারবেন৷

Facebook In Streem Ads থেকে টাকা আয়

এটি হলো এরকম যে, আপনাকে আপনার ফেসবুক পেজে ভিডিও আপলোড করতে হবে৷

এরপর আপনাকে আপনার পেজে ফেসবুক ইন স্ট্রিম এডসের জন্য আবেদন করতে হবে, এরপর যখন আপনার পেজ ফেসবুকের দ্বারা এপ্রুভ করানো হবে তাহলে আপনার ভিডিওতে ফেসবুকের মত কিছু বিজ্ঞাপন দেখানো হবে যেমনটা আপনারা ইউটিউবে কোন ভিডিও দেখার সময় কতগুলো বিজ্ঞাপন দেখতে পারেন৷

সেই বিজ্ঞাপনগুলোর বিনিময়ে আপনাকে কিছু টাকা দেওয়া হবে৷ যত পরিমাণে বেশি ফ্যান ফলোয়ার আপনার ফেসবুক পেজে থাকবে তত পরিমাণে আপনার ইনকাম বেশি হবে৷

৪. ফ্রিল্যান্সিং (freelancing) করে ইনকাম

বন্ধুরা বর্তমানে অনলাইন থেকে ইনকাম করার কথা আসলে একটি যে বিষয়টি সবাই অতি সহজে বুঝে থাকেন সেটি হলো ফ্রিলান্সিং।

বর্তমানে বাংলাদেশের অনেকেই ফ্রিলান্সিং করে অনলাইন থেকে ইনকাম করছেন৷

এটি স্টুডেন্টদের জন্য অনলাইন ইনকামের সবচেয়ে জনপ্রিয় মাধ্যম৷

ফ্রিল্যান্সিং করার মাধ্যমে অনেক বিদেশী ক্লায়েন্টদের কাজ করে দিতে হয়৷ কাজ শেষে তার বিনিময়ে আপনি টাকা পাবেন৷

ইন্টারনেটে অনেকগুলো ফ্রিলান্সিং বা আউটসোর্সিং এর কাজ পাওয়ার প্লাটফর্ম রয়েছে যেগুলো থেকে আপনি বিভিন্ন কাজ পেতে পারেন৷

যেমন, কয়েজটি জনপ্রিয় ফ্রিলান্সিং প্লাটফর্ম হলো

  • freelancer
  • fiverr
  • upwor
  • peopleperhour etc.

এই সব প্লাটফর্মে আপনি অনেক ছোট ছোট কাজ করে অনেক টাকা ইনকাম করতে পারবেন৷

তবে এগুলোতে কাজ করার আগে আপনাকে আগে ভালো করে কাজ শিখতে হবে৷ আপনি যেকোন একটি বিষয়ের উপর কাজ শিখতে পারেন৷

ফ্রিলান্সিং করার জন্য অনেগুলো কাজ রয়েছে৷ যেমন, web design and web development, graphics design, content writing, seo, digital marketing ইত্যাদি।

৫. এফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয়

আপনারা যারা অনলাইনে টাকা ইনকাম করতে চান তাদের অবশ্যই এফিলিয়েট মার্কেটিং সম্পর্কে মোটামুটি ধারণা রয়েছে অথবা এফিলিয়েট মার্কেটিং এর বিষয়ে শুনে থাকবেন।

অনলাইন থেকে অর্থ উপার্জনের জন্য এফিলিয়েট মার্কেটিং খুবই জনপ্রিয় একটি উপায়।

এফিলিয়েট মার্কেটিং হল কোন একটি অনলাইন কোম্পানির প্রোডাক্ট অনলাইনের মাধ্যমে বিক্রি করে দেওয়া।

এতে যে কোম্পানির প্রোডাক্ট আপনি বিক্রি করে দিবেন সেই কোম্পানি আপনাকে প্রোডাক্ট এর মূল্যের কিছু টাকা কমিশন হিসেবে দিয়ে দিবে।

মনে করুন, আপনি একটি অনলাইন কোম্পানির একটি ফ্রিজ বিক্রি করে দিলেন ফ্রিজটির দাম ৫০০০০ টাকা।

এখন আপনাকে যদি এই বৃষ্টির জন্য ৫% হারে কমিশন দেওয়া হয় তাহলে আপনি ২৫০০ টাকা কমিশন পাচ্ছেন।

এক্ষেত্রে আপনার এই কমিশনের হার বিভিন্ন কোম্পানির এফিলিয়েট প্রোগ্রাম অনুযায়ী ভিন্ন হতে পারে।

এফিলিয়েট মার্কেটিং এর সুবিধা হল

  • ঘরে বসে কাজ করতে পারবেন
  • এটি একটি আধুনিক এবং স্মার্ট পেশা
  • এফিলিয়েট মার্কেটিং নিয়ে আপনার ক্যারিয়ার হিসেবে নিতে পারবেন
  • আপনার পছন্দমত প্রোডাক্ট মার্কেটিংয়ের জন্য সিলেক্ট করতে পারবেন

এফিলিয়েট মার্কেটিং করার জন্য যা যা লাগবে

  • এফিলিয়েট মার্কেটিং করার জন্য আপনাকে একটি এফিলিয়েট ওয়েবসাইট তৈরি করতে হবে।
  • একটি ভালো এফেলিয়েট প্রোগ্রামে রেজিস্টার করতে হবে।
  • ওয়েবসাইটে প্রোডাক্টের রিভিউ নিয়ে সুন্দর আর্টিকেল লিখতে হবে।
  • ওয়েবসাইটের সঠিক মত এসইও (সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন) করে সার্চ ইঞ্জিনে ভালো র্যাংক করাতে হবে।

তাহলে বুঝলেন তো ঘরে বসে অনলাইনে ইনকম করার জন্য এফিলিয়েট মার্কেটিং কতটা লাভজনক উপায়।

৬. অনলাইনে ছবি বিক্রি করে ইনকাম

আপনি যদি ক্যামেরাতে বা নিজের মোবাইল ফোন দিয়ে ছবি তুলতে পছন্দ করেন, তাহলে অনলাইনে ছবি বিক্রি করে টাকা আয় করা টা আপনার জন্য লাভজনক হতে পারে।

এক্ষেত্রে আপনার ছবি তোলার কাজে ভালো অভিজ্ঞতা অবশ্যই থাকতে হবে। আপনার ছবির কোয়ালিটি অনেক ভাল হতে হবে।

বর্তমানে বিভিন্ন কোম্পানির অনলাইন বিজনেস বিজ্ঞাপন ইত্যাদি বিভিন্ন কাজে Stock images ব্যবহার করে থাকেন।

আর এই স্টক ইমেজ গুলো বিভিন্ন স্টক ইমেজ ওয়েবসাইট থেকে কিনে নেন।

আর তাই আপনি ছবি বানিয়ে স্টক ইমেজ ওয়েবসাইটগুলোতে আপলোড করতে পারেন।

যখন এই কেউ আপনার ছবি কিনবে তখন এই আপনি কিছু টাকা কমিশন হিসেবে পেয়ে যাবেন এবং যতবার আপনার ছবি বিক্রি হবে ততবার আপনি টাকা পেতে থাকবেন।

আর এজন্যই ছবি বিক্রি করে ঘরে বসে অনলাইনে ইনকাম করাটা বর্তমানে লাভজনক হয়ে দাঁড়িয়েছে।

আমার শেষ কথা

আশা করি ইন্টারনেটে অনলাইন টাকা ইনকাম করার সেরা উপায়গুলো সম্পর্কে আপনি জেনে গেছেন।

এগুলো উপায়ের মধ্যে যেকোন একটি যদি আপনি ভালোভাবে শিখেন তাহলে অবশ্যই আপনার অনলাইনে টাকা আয় করার নিশ্চয়তা থাকবে।

এ ছাড়াও আপনি আরো অনেক কাজের বিষয়ে জেনে থাকতে পারেন যেমন, এন্ড্রয়েড এপ্স থেকে টাকা আয়, গেম খেলে টাকা আয় ইত্যাদি।

আমি আপনাকে এই কজগুলো করার পরামর্শ কখনোই দিবোনা। কেননা এই কাজগুলো করলে আপনি টাকা পেলেও সেটা অনেক কম পরিমাণে পাবেন এবং আপনার প্রচুর সমর এতে অপচয় হতে থাকবে।

অনেক ক্ষেত্রে আপনি আবার টাকা নাও পেতে পারেন। তাই এসবে সময় নষ্ট কখনো করবেন না। এর চেয়ে আপনি আমার উপরে দেখানো উপায়গুলো অনুযায়ী কাজ করুন।

যেকোন একটি বিষয়ে পুরোপুরি শিখে নিয়ে কাজে নেমে পরুন, অবশ্যই সফল হতে পারবেন।

আর একটি কথা মনে রাখবেন, কোন পরিশ্রম করতে নাই চাইলে আপনি কখনোই অনলাইন থেকে আয় করতে সক্ষম হবেন না। তাই যে বিষয়টি আপনার ভালো লাগে সে কাজটি গুগল বা ইউটিউব থেকে শিখা শুরু করে দিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *