এডসেন্স থেকে টাকা তোলার পদ্ধতি জেনেনিন

বন্ধুরা, আজকের আর্টিকেলের মাধ্যমে আমরা গুগল এডসেন্স থেকে টাকা তোলার পদ্ধতি ভালোভাবে জানবো।

আপনি যদি বাংলাদেশে এডসেন্স থেকে টাকা তোলার উপায় সম্পর্কে জানতে চাচ্ছেন তাহলে আর্টিকেলটি শেষ পর্যন্ত পড়তে থাকুন। (How to withdraw money from Google AdSense in Bengali)

এডসেন্স থেকে টাকা তোলার পদ্ধতি
Google AdSense থেকে টাকা তোলার পদ্ধতি কি ?

বর্তমানে প্রত্যেকেই ঘরে বসে ইন্টারনেট থেকে টাকা আয় করতে চান। ঘরে বসে অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করার সবচেয়ে সহজ এবং লাভজনক উপায় হলো ব্লগিং (blogging)।

অনলাইন ব্লগ থেকে সহজেই কনটেন্ট লিখার মাধ্যমে টাকা অর্থ উপার্জন করা যায়।

আর আমরা জানি, অনলাইন ব্লগ থেকে টাকা আয় করার সবচেয়ে জনপ্রিয় উপায় হলো গুগল এডসেন্স (Google AdSense)।

কারণ ব্লগের আর্টিকেলের মধ্যে গুগল এডসেন্স এর বিজ্ঞাপন (advertisements) দেখিয়ে সহজেই ব্লগ থেকে টাকা আয় করা সম্ভব।

ব্লগের পাশাপাশি ইউটিউব চ্যানেল থেকেও গুগল এডসেন্স এর মাধ্যমে টাকা আয় করা যায়।

কেননা একটি ইউটিউব চ্যানেল যখন মনিটাইজ (monetize) করানো হয় তখন ইউটিউবের তরফ থেকে ভিডিওতে কিছু advertisements দেখানো হয়ে থাকে। আর এর ইনকাম generate হয়ে থাকে Google AdSense একাউন্টে।

তাই আপনি যদি অনলাইন থেকে অর্থ উপার্জন করার সবচেয়ে জনপ্রিয় দুইটি উপায় যেমন, ইউটিউব এবং ব্লগিং এর মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করতে চাইছেন তাহলে আপনাকে প্রথমেই গুগল এডসেন্স এর বিষয়ে ভালোভাবে জেনে নেওয়া দরকার।

গুগল এডসেন্স এর সাথে জড়িত অনেক বিষয় রয়েছে যেগুলো আপনার আগেই জেনে নেওয়া জরুরী।

যেমন গুগল এডসেন্স এর অনেক নিয়ম নীতিমালা এবং শর্তাবলী রয়েছে যেগুলো সম্পর্কে আমাদের ভালো জ্ঞান রাখা দরকার।

কিন্তু এগুলোর মধ্যে গুগল এডসেন্স থেকে টাকা আয় করার জন্য অনেকেই যে বিষয়টি সম্পর্কে আগে জানতে চান সেটি হলো গুগল এডসেন্স থেকে টাকা তোলার পদ্ধতি বা প্রক্রিয়া কি?

এই বিষয়ে নিচে আমি বিস্তারিত উল্লেখ করেছি। তো চলুন জেনে নেওয়া যাক How to withdraw money from Google AdSense in Bangladesh এর বিষয়ে।

ইউটিউব থেকে টাকা তোলার উপায় সম্পর্কে আমি আগেই একটি আর্টিকেলে আপনাদের বলেছি। সেই‌ আর্টিকেলটিও আপনারা পড়তে পারেন।

গুগল এডসেন্স থেকে টাকা তোলার পদ্ধতি

আপনি যদি গুগল এডসেন্স থেকে টাকা আয়ের প্রত্যাশা নিয়ে ব্লগিং কিংবা ইউটিউব চ্যানেল শুরু করেছেন তাহলে আপনি “এডসেন্স থেকে টাকা তুলবেন যেভাবে” এ বিষয়ে জেনে রাখা দরকার।

বন্ধুরা এডসেন্স থেকে টাকা তোলার সাথে কিছু বিষয় অবশ্যই রয়েছে যেগুলো আমি নিচে ধারাবাহিকভাবে আপনাকে বুঝিয়ে বলবো।

অ্যাপ তৈরি করে কিভাবে আয় করা যায় এ বিষয়ে বিস্তারিত জেনে নিন।

একটি অনলাইন ব্লগ তৈরি করুন

গুগল এডসেন্স থেকে আয়ের জন্য আপনাকে একটি ব্লগ বা ওয়েবসাইট অবশ্যই তৈরি করতে হবে।

ফ্রীতে মোবাইল দিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করার নিয়ম জেনে নিন।

তারপর ব্লগে নিয়মিত কিছু ভালো ভালো আর্টিকেল পাবলিশ করুন।

এমন আর্টিকেল লিখুন যাতে গুগল সার্চ ইঞ্জিন থেকে ট্রাফিক আপনার ব্লগে আসে।

ব্লগ এডসেন্স এর সাথে কানেক্ট (connect) করুন

যদি আপনার ব্লগে ৩০-৪০ টি high quality আর্টিকেল পাবলিশ করেছেন তাহলে আপনার ব্লগকে গুগল এডসেন্স এর সাথে কানেক্ট করতে হবে।

আপনাকে একটি গুগল এডসেন্স একাউন্ট খুলতে হবে এবং ওয়েবসাইট বা ব্লগকে এডসেন্স একাউন্টে যুক্ত করতে হবে।

এরপর কয়েকদিনের এডসেন্স আপনার ব্লগকে রিভিউ করে দেখবে। যদি আপনার ব্লগে গুগল এডসেন্স এপ্রুভাল পেয়ে যান তাহলে ব্লগের আর্টিকেলের ভিতরে বিজ্ঞাপন সেট করতে পারবেন।

যখন আপনার ব্লগের ভিজিটররা সেই সকল বিজ্ঞাপনে ক্লিক করবে তখন তার বিনিময়ে নির্দিষ্ট পরিমাণে টাকা আপনার এডসেন্স একাউন্টে যুক্ত হয়ে যাবে।

গুগল এডসেন্স পিন ভেরিফাই করুন

যখন আপনার এডসেন্সে ১০ ডলার জমা হয়ে যাবে তখন আপনি এডসেন্স থেকে একটি letter পাবেন। এই letter আপনার postal code অনুযায়ী পাঠিয়ে দেওয়া হবে।

এখানে একটি পিন কোড থাকবে যেটি দিয়ে গুগল এডসেন্স একাউন্টের পিন ভেরিফিকেশন করতে হবে।

এডসেন্স থেকে টাকা তুলবেন যেভাবে : টাকা তোলার প্রক্রিয়া

গুগল এডসেন্স একাউন্টের পেমেন্ট সেটিংস অপশনে গিয়ে আপনার ব্যাংক ডিটেইস (bank details) ভালোভাবে যোগ করতে হবে।

এক্ষেত্রে সেখানে যে ডিটেইলস গুলো দিতে বলবে সেগুলো দিতে হবে।

আর এক্ষেত্রে আপনাকে ব্যাংকের সুইফট কোডের (swift code) প্রয়োজন হবে।

যে ব্যাংকে আপনার একাউন্ট রয়েছে সে ব্যাংকে গিয়ে সুইফট কোড জেনে নিন।

এভাবে আপনি গুগল এডসেন্স একাউন্টে পেমেন্ট মেথড (payment method) যুক্ত করতে পারবেন।

Payment method যুক্ত করার পর আপনাকে আর কোন কিছুই করতে হবে না।

যখন আপনার একাউন্টে ১০০ ডলার জমা হয়ে যাবে তখন গুগল আপনার ব্যাংকে টাকা পাঠিয়ে দিবে।

যদি আপনার নভেম্বর মাসে ১০০ ডলার সম্পূর্ণ হয় তাহলে গুগল ডিসেম্বর মাসের ২০ থেকে ২৬ তারিখের মধ্যে আপনার টাকা পাঠিয়ে দিবে।

এটি আমি ব্লগের ক্ষেত্রে বললাম। ইউটিউব চ্যানেলের ক্ষেত্রেও সবকিছু একই পদ্ধতিতে হয়ে থাকে।

তবে আমি একটি ভালো পরামর্শ আপনাদের দিতে চাচ্ছি। যখন আপনি গুগল এডসেন্স একাউন্ট খুলবেন তখন আপনার address ভালোভাবে দিবেন এবং সঠিক দিবেন।

অথবা একাউন্টে ১০ ডলার হওয়ার আগে ঠিকানা ভালোভাবে পুরণ করে নিবে।

তাহলে “গুগল এডসেন্স থেকে টাকা তুলবো কিভাবে” এই প্রশ্নের উত্তর আশা করি পেয়ে গেছেন।

সর্বশেষ

“গুগল এডসেন্স থেকে টাকা তোলার পদ্ধতি” আমি উপরে ভালোভাবে উল্লেখ করেছি।

আপনি যদি গুগল এডসেন্স থেকে টাকা ইনকাম করতে চাইছেন তাহলে এসব বিষয়ে আগে তেমন বেশি না ভেবে মনযোগ দিয়ে কাজ শুরু করুন।

আপনার উপার্জনের টাকা অবশ্যই আপনার হাতে পৌছে যাবে।

যদি এডসেন্স থেকে টাকা তোলার নিয়ম সম্পর্কে এই আর্টিকেলটি আপনাদের ভালো লাগে তাহলে বন্ধুদের সাথে অবশ্যই শেয়ার করবেন।

Abu Shafiq

আমি সফিক। আমি রংপুর বিভাগে থাকি। বর্তমানে বিজ্ঞান বিভাগের একজন স্টুডেন্ট। পড়ালেখার পাশাপাশি আমি আমার ব্লগে কনটেন্ট লিখি। এটি আমার বাংলা ব্লগ। কনটেন্ট লিখার মাধ্যমে আমার অভিজ্ঞতা পাঠকদের সাথে শেয়ার করে থাকি। এছাড়াও আমি এফিলিয়েট মার্কেটিং এর সাথে যুক্ত রয়েছি।

Leave a Reply