Skip to content

ওয়েবসাইট কি ? ওয়েবসাইট এর প্রকারভেদ এবং কাজ

ওয়েবসাইট কি বা ওয়েবসাইট কাকে বলে, ওয়েবসাইট এর কাজ কি, ইন্টারনেটে কত ধরনের ওয়েবসাইট রয়েছে এসব বিষয়ে আজকের আর্টিকেলে আমরা জানব।

সেই সাথে, ওয়েবসাইটের সাথে জড়িত বিষয় গুলো যেমন, ওয়েবসাইট তৈরি করতে কি কি লাগে, ওয়েবসাইটের ডোমেইন কি এবং হোস্টিং কি, ওয়েবসাইট ডিজাইন কি এসবের বিষয়ে আজকের আর্টিকেলে আমি আলোচনা করব।

ওয়েবসাইট কি

Website মানে কি ?

আমরা সকলেই প্রতিদিন আমাদের মোবাইল ফোন বা কম্পিউটারের মাধ্যমে অনেক বেশি সময় ধরে ইন্টারনেট ব্যবহার করে থাকি।

ইন্টারনেট ব্যবহার করার বেশিরভাগ সময়ই আমরা বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করি যেমন ফেসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রাম ইত্যাদি।

এর পাশাপাশি আমরা ভিডিও শেয়ারিং সাইট যেমন, ইউটিউবে ভিডিও দেখে থাকি।

এগুলোর সব গুলোই হলো এক একটি ওয়েবসাইট।

তাছাড়া, কোনো সময়ে আমাদের যখন জরুরি কোনো বিষয়ে তথ্য জানার প্রয়োজন হয়, তখন আমরা ইন্টারনেট ব্যবহার করে থাকি।

যেমন, অনলাইন গেম খেলা, অনলাইন গান শোনা, অনলাইন ছবি সাজানো, অনলাইন থেকে কোন কিছু ডাউনলোড করা, শিক্ষাক্ষেত্রে অনলাইন থেকে কোন প্রশ্নের উত্তর জানা এছাড়াও আরো অনেক প্রয়োজনে আমরা প্রতিদিন ইন্টারনেটের ব্যবহার করে থাকি।

মনে রাখবেন,

এ সকল কাজের জন্যই আমরা আলাদা আলাদা ওয়েবসাইট (website) ব্যবহার করে থাকি।

আর আমরা যখন ইন্টারনেট থেকে কোনো তথ্য পাওয়ার জন্য ব্রাউজারের মাধ্যমে search করি, তখন আমরা বিভিন্ন search engine website গুলো ব্যবহার করে থাকি। যেমন, Google, Bing, Yahoo ইত্যাদি।

এগুলো হলো একটি search engine ওয়েবসাইট।

আবার, যখন আমরা এসব সার্চ ইঞ্জিনে কোন বিষয়ে search করার পর search result গুলো list আকারে দেখতে পাই। এই search result এর মধ্যে থাকা প্রত্যেকটি ফলাফল হলো এক একটি ওয়েবসাইট এর।

ওয়েবসাইটের ওয়েব পেজ গুলোকে আমরা search engine result page এর মধ্যে দেখতে পাই।

এর থেকে আমরা এটা বলতে পারি যে, আমাদের প্রয়োজনে আমরা প্রতিদিনই একের অধিক ওয়েবসাইট ব্যবহার করে থাকি, কিন্তু আমরা এটা জানি না যে, এগুলো এক একটি ওয়েবসাইট।

তাই ইন্টারনেটের এই যুগে প্রত্যেকেরই website কি এবং ওয়েবসাইট এর প্রকারভেদ এসব বিষয়ে ভালোভাবে জেনে রাখা দরকার।

তাছাড়া, আমরা কমবেশি প্রত্যেকেই এই বিষয়ে জানি যে, ইন্টারনেটে একটি ওয়েবসাইট থেকে টাকা আয় করা যায়। যাহোক, এই বিষয়ে আমি নিচে আপনাদের বলে দিব।

আগে চলুন ভালো করে জেনে নিই, ওয়েবসাইট কি বা ওয়েবসাইট কাকে বলে ?

ওয়েবসাইট কি ? (What is Website in Bengali)

এমনিতে ওয়েবপেজ কি এই বিষয়ে আমি আগের আর্টিকেলে আপনাদের বলেছি।

একটি ওয়েবসাইট হলো একাধিক ওয়েবপেজের একটি collection বা সংগ্রহ। এক বা একের অধিক ওয়েবপেজ মিলে একটি ওয়েবসাইট গঠিত হয়।

আমরা জানি যে, একটি ওয়েবপেজে ইমেজ, অডিও, ভিডিও, লেখা এসব ডিজিটাল কনটেন্ট সাজানো থাকে।

সহজ ভাবে বললে, একটি ওয়েবসাইটের অধীনে একাধিক ওয়েবপেজ থাকে। এসব webpage ওয়েবসাইটের parent URL বা ডোমেইন (domain) এর সাথে connect থাকে।

একটি ওয়েবসাইট খোলার পর নিজের চাহিদামতো একাধিক ওয়েবপেজ যোগ করা যায়।

যেকোন ওয়েবসাইটের একটি homepage থাকে। যেটিকে সেই সাইটের main page বা প্রধান পাতা বলা হয়।

একটি ওয়েবসাইটের নামকে domain name বলে। একটি ওয়েবসাইটের ডোমেইন নামেই সেই সাইটের URL address বা প্রধান পাতার ঠিকানা হিসেবে থাকে।

এর সাথে অন্যান্য ওয়েবপেজ গুলোর ঠিকানা (address) এর connection থাকে।

যেমন, আরেকটু সহজ ভাবে বললে, আপনি যে আমার “Website কাকে বলে” এই আর্টিকেলটি এখন পড়ছেন, এই আর্টিকেল পেজটি আমার ওয়েবসাইট itjano.xyz এর অধীনে একটি web page.

আমার ওয়েবসাইটের domain name বা URL address হলো https://itjano.xyz

আর এই পেজটির ইউয়ারএল হলো https://itjano.xyz/ওয়েবসাইট-কি/

আমি এরকম যত গুলো নতুন আর্টিকেল লিখব, তত গুলো নতুন ওয়েবপেজ আমার ওয়েবসাইটের সাথে যোগ হবে।

Website কাকে বলে ?

ওয়েবসাইট কাকে বলে

উপরে আমি ওয়েবসাইট মানে কি এ বিষয়ে সহজ ভাবে আপনাদের বলার চেষ্টা করেছি।

সোজা কথায়, একাধিক ওয়েবপেজের একটি সংগ্রহকে ওয়েবসাইট বলা হয়।

আর এই ওয়েবপেজ গুলো একটির সাথে আরেকটি connect থাকে hypertext বা hyperlink এর মাধ্যমে।

সাধারণত, ওয়বেসাইট গুলোর প্রধান পেজ বা homepage এর মধ্যে অন্যান্য পেজ গুলো hypertext বা hyperlink এর মাধ্যমে connect থাকে।

তবে, শুধু হোমপেজের সাথেই একটি ওয়েবসাইটের প্রতিটি single page যুক্ত থাকে না, প্রতিটি single web pege এর সাথে প্রতিটি single web page এর connection থাকে hypertext বা hyperlink এর মাধ্যমে।

যেগুলো ব্যবহার করে আমরা ওয়েবে একটি ওয়েবপেজ থেকে অন্য আরেকটি ওয়েবসাইটে যেতে পারি।

যেমন, আপনি আমার এই আর্টিকেল পেজে কতগুলো red colour এর text দেখছেন, এগুলো hypertext অথবা hyperlink এর মাধ্যমে অন্য একটি পেজের সাথে সংযোগ (connect) রয়েছে।

এগুলোতে click করে আপনি এই পেজ থেকে অন্য পেজে প্রবেশ করতে পারবেন।

তাহলে ওয়েবসাইট কি বা website মানে কি এ বিষয়ে আশা করি আপনি ভালো করে জানতে পেরেছেন উপরের আলোচনা থেকে।

ওয়েবসাইট কাকে বলে এই বিষয়ে আপনাদের বলেছি, তবে উপরে ওয়েবপেজ কথাটি অনেকবার ব্যবহার করা হয়েছে।

Webpage কি ?

আমরা জানি যে, ওকটি web page সাধারণত HTML বা Hypertext Markup Language এর মাধ্যমে তৈরি করা হয়ে থাকে।

এতে text, image, audio, video এই চার ধরনের digital content রাখা হয়।

এছাড়াও, আপনি যদি মনে করেন যে, ওয়েবপেজের বিষয়ে আপনার আরো ভালো ভাবে জানা দরকার, তাহলে আমার লিখা ওয়েবপেজ কি এই আর্টিকেলটি পড়ে আসতে পারেন।

Webpage কত প্রকার ও কি কি ?

ওয়েবপেজ দুই ধরনের হয়ে থাকে।

যেমন,

  • Static web page
  • Daynamic web page

এসব বিষয়ে আমি অনেক সহজভাবে ছোট আকারে আপনাদের বলি।

Static Web Page কি ?

Static web page হলো সেই ধরনের web page, যার কোন পরিবর্তন (change) হয় না।

এর মানে হলো, মনে করুন, একটি পেজে কিছু লেখা ইমেজ সহকারে সাজানো রয়েছে। সেই ওয়েবপেজটি ব্রাউজ (browse) করার পর সেখানে থাকা content এর কোন পরিবর্তন হয় না।

যেমন, আমার এই আর্টিকেল পেজটিকে একটি Static web page বলা চলে। এগুলো HTML এর মাধ্যমে তৈরি করা হয়ে থাকে।

Dynamic Web Page কি ?

ডায়নামিক ওয়েবপেজ হলো সেই ওয়েবপেজ, যেখানে থাকা কনটেন্ট সবসময় change হতে থাকে এবং প্রত্যেক ইউজারদের একই সময়ে আলাদা আলাদা কনটেন্ট দেখিয়ে থাকে।

উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, আপনি যখন ইউটিউবে প্রবেশ করেন, একই সময়ে যদি আমি ইউটিউবে প্রবেশ করি, তাহলে আপনি এবং আমি একই সময়ে ইউটিবে আলাদা আলাদা ভিডিও কনটেন্ট দেখতে পারব।

এরকম ওয়েবপেজকে Daynamic web page বলা হয়ে থাকে।

কিভাবে একটি ওয়েবসাইটে প্রবেশ করা যায় ?

যেকোন একটি ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার জন্য একটি ওয়েব ব্রাউজারের প্রয়োজন হয়।

আমাদের কম্পিউটার বা মোবাইল ফোনে থাকা web browser গুলো যেমন, Google Chrome, Firefox, Opera ইত্যাদি ব্যবহার করে আমরা যেকোন ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে পারি।

একটি ওয়েবসাইটে যাওয়ার জন্য সেই ওয়েবসাইটের ডোমেইন নেম বা URL ব্রাউজারের adress bar এ টাইপ করে browse করলে সেই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করা যায়।

যেমন, আপনি যদি আপনার ডিভাইসের ব্রাউজারে itjano.xyz লিখে enter করেন, তাহলে আমার এই ওয়েবসাইটে চলে আসতে পারবেন।

Website কিভাবে কাজ করে ?

একটি ওয়েবসাইটের যে সকল ডাটা (data) বা ওয়েবপেজ থাকে, সেই ওয়েবপেজ গুলো web server এ store করা থাকে।

ছোট ওয়েবসাইট গুলো তাদের ডাটা গুলোকে সংরক্ষণ করে রাখার জন্য কেবল একটি ওয়েব সার্ভার ব্যবহার করে থাকে। ওয়েবসাইটের সকল তথ্য একটি সার্ভারে store করা থাকে।

আর বড় ওয়েবসাইট গুলো তাদের data গুলো একাধিক দেশের একাধিক ওয়েব সার্ভারে সংরক্ষণ করে রাখে।

ফলে, যখন একটি দেশের ইউজার বা ব্যবহারকারী সেই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার জন্য ব্রাউজারে লিখে search করেন, তখন তারা সেই দেশের নিকটতম সার্ভার থেকে তাড়াতাড়ি search করা webpage এর মধ্যে প্রবেশ করতে পারেন।

আমরা যখন কোন ওয়েব পেজকে search করি ব্রাউজারের মাধ্যমে, তখন server সেই পেজটিকে আমাদের ব্রাউজারে render করে।

যার কারণে, সেই পেজটি বা ওয়েবসাইটটি আমাদের সামনে দৃশ্যমান হয়ে থাকে এবং আমরা বিভিন্ন তথ্য পেতে পারি।

বর্তমানে অনেক modern programing language গুলো ব্যবহার করে ওয়েবসাইট ডিজাইনের কাজ করা হয় বলে, প্রত্যেকটি ওয়েবসাইট ইউজারদের সামনে অনেক ভালো ডিজাইন নিয়ে প্রকাশিত হয়ে থাকে।

প্রথম ওয়েবসাইট কখন তৈরি করা হয় ?

1991 সালের 6 আগষ্ট স্যার টিমোথি জন বার্নার্স-লি পৃথিবীর প্রথম ওয়েবসাইট তৈরি করেছিলেন। তিনি CERN এ এই ওয়েবসাইট তৈরি করেন।

পৃথিবীর প্রথম ওয়েবসাইটের নাম হলো, http://info.vern.ch

ইন্টারনেটে কে ওয়েবসাইট তৈরি করেন ?

ইন্টারনেটে বর্তমানে কোটি কোটি ওয়েবসাইট available রয়েছে। এই ওয়েবসাইট গুলো কোটি কোটি মানুষ তৈরি করেছেন।

তবে, সরকার (government), সংস্থা (organisation), কলেজ অথবা বিশ্ববিদ্যালয় (educational institution) অথবা কোন মানুষ ইন্টারনেটে তাদের ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারে।

আপনি যদি চান, তাহলে আপনিও একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারেন সহজেই।

ওয়েবসাইট কত প্রকার ও কি কি ? (Different Types of Website)

ওয়েবসাইট এর প্রকারভেদ

উপরে ওয়েবসাইট কি বা ওয়েবসাইট মানে কি এবং ওয়েবসাইট কিভাবে কাজ করে এ ব্যাপারে আশা করি আপনি ভালো করেই জেনে গেছেন।

তবে আপনি কি জানেন যে, ইন্টারনেটে কত প্রকারের ওয়েবসাইট আছে ?

যদি জানেন না, তাহলে নিচে আমি ওয়েবসাইট এর প্রকারভেদ এর বিষয়ে আপনাদের বলে দিব।

এমনিতে আমরা অন্যান্য ওয়েবসাইট গুলোর তুলনায় সার্চ ইঞ্জিন ওয়েবসাইট, ব্লগ সাইট, সোশ্যাল মিডিয়া সাইট, মিডিয়া শেয়ারিং সাইট এসকল সাইটের বর্তমানে প্রচুর পরিমাণে জনপ্রিয়তা রয়েছে।

তাছাড়া, আমরা যখন গুগলে কোন তথ্যের জন্য সার্চ করি, তখন মূলত আমরা ব্লগ ওয়েবসাইট গুলোতে গিয়ে blog article পড়ে আমাদের সমস্যার সমাধান পেয়ে থাকি।

তবে, এগুলো ছাড়াও আরো অনেক ধরনের ওয়েবসাইট রয়েছে। যেমন,

  • Search Engine Website
  • Blog
  • Community Website
  • Social Networking Website
  • Media Sharing Website
  • Question Answer Website
  • Archive Website
  • Business Website
  • Corporate Website
  • Dating Website
  • Educational Website
  • E-Commerce Website
  • Government Website
  • News Website
  • Image Gellary Website
  • Personal Website
  • Review Website
  • Webmail Website
  • Wiki Website

Search Engine Website

আমরা ইন্টারনেটে কোন কিছু search করার সময় যে ওয়েবসাইট গুলো ব্যবহার করে থাকি, সেগুলো হলো সার্চ ইঞ্জিন ওয়েবসাইট।

বিশ্বের কয়েকটি জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন হলো google, bing, yahoo, yandex, dukdukgo ইত্যাদি।

এসব search engine সকল ওয়েবসাইটের কনটেন্ট পেজ গুলোকে index করে রাখে। এরপর যখন কেউ কোন একটি টপিক নিয়ে search করে, তখন সেই টপিকের সাথে জড়িত index করা ওয়েবপেজ টিকে search result এ দেখায়।

এভাবে search engine গুলো কাজ করে থাকে। আমাদের যেকোন তথ্য ইন্টারনেটে নিমিষেই খুজে পেতে সার্চ ইঞ্জিন ওয়েবসাইট গুলো খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখে।

Blog Website

আজকাল ব্লগ ওয়েবসাইটের চাহিদা প্রচুর পরিমাণে বেড়ে গিয়েছে।

ব্লগ ওয়েসাইটে সাধারণত মানুষের প্রয়োজনীয় বিষয় নিয়ে এক একটি আর্টিকেল লিখা হয়ে থাকে।

যারা ব্লগে আর্টিকেল লিখেন তাদের বলা হয় ব্লগার। আর ব্লগাররা কেবল সেই বিষয় গুলোর উপরই আর্টিকেল লিখেন, যেগুলো লোকেরা বিভিন্ন সার্চ ইঞ্জিন গুলোতে সার্চ করে।

এর মানে হলো, আপনি যেমন গুগলে সার্চ করেছেন, Website মানে কি ? এরপর আপনি আমার এই ব্লগে এসে আর্টিকেলটি পড়ছেন।

একইভাবে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ব্লগে ব্লগার বা কনটেন্ট রাইটাররা আর্টিকেল publish করে থাকেন।

Social Networking Website

আজকালকার দিনে সোশ্যাল মিডিয়া চিনেনা বা ব্যবহার করেনা এরকম মানুষ খুব কমেই পাওয়া যাবে।

এখন ছোট ছোট ছেলে মেয়েরাও প্রতিদিন সোশ্যাল মিডিয়া ওয়েবসাইট গুলো ব্যবহার করে থাকে।

কয়েকটি জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া ওয়েবসাইট হলো facebook, twitter, instagram ইত্যাদি।

লোকেরা সাধারণত বন্ধু এবং পরিবার পরিজনের সাথে যোগাযোগ বা connect থাকার জন্য এসকল সোশ্যাল মিডিয়া সাইট গুলো ব্যবহার করেন।

তাছাড়া, এখনকার দিনে বিনোদনের জন্যও এসব সাইট অনেকেই ব্যবহার করে থাকেন।

সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে আমরা ফ্রিতেই ইচ্ছামত যে কারো সাথে messaging করতে পারি এবং video call এর মাধ্যমে কথা বলতে পারি।

Image Gellary Website

এসকল ওয়েবসাইট আপনি হয়ত দেখে থাকবেন। Image Gellary সাইট গুলোতে প্রচুর পরিমাণে stock image থাকে।

আমাদের অনেক কাজের সময় সেই কাজের সাথে জড়িত ভালো ভালো ছবি দরকার হয়ে থাকে। তখন আমরা এই stock image এর ওয়েবসাইট গুলোতে সেই ছবি search করে download করে নিতে পারি।

কয়েকটি ফ্রি স্টক ইমেজ ওয়েবসাইট হলো pixabay.com, pixels.com, sutterstock.com, istock.com ইত্যাদি।

আমাদের প্রয়োজন মতো যেকোন সুন্দর সুন্দর কপিরাইট ফ্রি ইমেজ আমরা এই সাইট গুলো থেকে download করে নিতে পারি।

News Portal Website

আপনি এটা অবশ্যই জানেন যে, অনলাইনে হাজার নিউজ ওয়েবসাইট রয়েছে, যেগুলো থেকে আমরা দেশ বিদেশের বিভিন্ন খবর পেতে পারি অনেক সহজে।

তাই, এই সাইটের বিষয়ে আমাকে নতুন করে কিছু বলতে হবে না আশা করি।

Question to Answer Website

এই প্রশ্ন উত্তর ওয়েবসাইট গুলো বর্তমানে খুবই জনপ্রিয়তা লাভ করেছে।

লোকজন তাদের মনে জাগা প্রশ্ন গুলোর উত্তর পাওয়ার জন্য এসব সাইটে গিয়ে প্রশ্ন করে থাকেন। আর এই প্রশ্নের উত্তর অন্য কেউ দিয়ে দেন।

যেকোন বিষয়ে জানার জন্য এই সাইট গুলো অনেক উপকারে আসে। কেননা এই সাইট গুলোতে হাজার হাজার ইউজার রয়েছেন, যারা প্রশ্ন করে থাকেন এবং প্রশ্নের জবাব দিয়ে থাকেন।

বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় Question Answer ওয়েবসাইট হলো Quora.

কিভাবে ওয়েবসাইট থেকে টাকা আয় করা যায় ?

আজকাল প্রায় প্রত্যেকেই এই বিষয়টি জানতে চান যে, কিভাবে ওয়েবসাইট থেকে টাকা ইনকাম করা যায়।

দেখুন, একটি ওয়েবসাইট থেকে টাকা ইনকাম করতে হলে আপনাকে প্রথমে একটি ওয়েবসাইট বা ব্লগ তৈরি করতে হবে।

এরপর সেই ব্লগে ভালো ভালো আর্টিকেল লিখতে হবে। আপনার লিখা আর্টিকেল search engine এ rank করাতে হবে।

এরপর আপনার ওয়েবসাইটে যখন সার্চ ইঞ্জিন থেকে ভালো পরিমাণে traffic বা visitors আসবে, তখন আপনি Google AdSense এর advertisements আপনার ব্লগে দেখিয়ে টাকা আয় করতে পারবেন।

আমার শেষ কথা

তাহলে বন্ধুরা, আশা করি ওয়েবসাইট কি বা ওয়েবসাইট কাকে বলে, ওয়েবসাইট এর কাজ কি, ওয়েবসাইট এর সুবিধা এসব বিষয়ে আজকের আর্টিকেলে ভালোভাবে জানতে পেরেছেন।

যদি আর্টিকেলটি আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে সোশ্যাল মিডিয়ায় অবশ্যই বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন।

আর আর্টিকেলের সাথে জড়িত কোন প্রশ্ন বা পরামর্শ থাকলে অবশ্যই নিচে কমেন্ট করে জানিয়ে দিবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.