Skip to content

বৃত্ত কাকে বলে ? (Britto kake bole) বৃত্তের পরিধি, ব্যাস ও জ্যা কি

বৃত্ত কি / বৃত্ত কাকে বলে ? (Britto kake bole)

বৃত্ত কাকে বলে

বৃত্তের সংজ্ঞা এবং এর বিভিন্ন অংশ গুলো।

বৃত্ত কি ? (What is cricle)

বৃত্ত হলো একটি সমতলীয় জ্যামিতিক চিত্র যার বিন্দুগুলো কোনো নির্দিষ্ট বিন্দু থেকে সমদূরত্বে অবস্থিত।

বৃত্ত কাকে বলে ? (Britto kake bole)

বৃত্ত (Circle): বৃত্ত একটি সমতলীয় জ্যামিতিক চিত্র যার বিন্দুগুলো কোনো নির্দিষ্ট বিন্দু থেকে সমদূরত্বে অবস্থিত। নির্দিষ্ট বিন্দুটি বৃত্তের কেন্দ্র।

নির্দিষ্ট বিন্দু থেকে সমদূরত্ব বজায় রেখে কোনো বিন্দু যে আবদ্ধ পথ চিত্রিত করে তাই বৃত্ত।

কেন্দ্র হতে বৃত্তস্থ কোনো বিন্দুর দূরত্বকে ব্যাসার্ধ বলে।

মনে করি, O সমতলের কোনো নির্দিষ্ট বিন্দু এবং r নির্দিষ্ট পরিমাপ। সমতলস্থ যে সকল বিন্দু O থেকে r দূরত্বে অবস্থিত, এদের সেট বৃত্ত, যার কেন্দ্র O ও ব্যাসার্ধ r ।

বৃত্ত কাকে বলে

চিত্রে O বৃত্তের কেন্দ্র, A, B ও C বৃত্তস্থ বিন্দু। OA, OB ও OC এর প্রত্যেকটি বৃত্তটির ব্যাসার্ধ।

সমতলস্থ কতিপয় বিন্দুকে সমবৃত্ত বিন্দু বলা হয় যদি বিন্দুগুলো দিয়ে একটি বৃত্ত যায় অর্থাৎ, এমন একটি বৃত্ত থাকে যাতে বিন্দুগুলো অবস্থিত হয়। উপরের চিত্রে A, B ও C সমবৃত্ত বিন্দু।

বৃত্তের অভ্যন্তর ও বহির্ভাগ (Interior and exterior of a circle)

যদি কোনো বৃত্তের কেন্দ্র O এবং ব্যাসার্ধ r হয় তবে r থেকে সমতলের যে নকল বিন্দুর দূরত্ব এর চেয়ে কম এদের সেটকে বৃত্তটির অভ্যন্তর এবং O থেকে সমতলের যে সকল বিন্দুর দূরত্ব r এর চেয়ে বেশি এদের সেটকে বৃত্তের বহির্ভাগ বলা হয়। বৃত্তের অভ্যন্তরস্থ দুইটি বিন্দুর সংযোজক রেখাংশ সম্পূর্ণভাবে বৃত্তের অভ্যন্তরেই থাকে।

কোনো বৃত্তের অভ্যন্তরস্থ একটি বিন্দু ও বহিঃস্থ একটি বিন্দুর সংযোজক রেখাংশ বৃত্তটিকে একটি ও কেবল একটি বিন্দুতে ছেদ করে।

বৃত্ত কাকে বলে

চিত্রে, P বৃত্তের অভ্যন্তরস্থ একটি বিন্দু এবং Q বৃত্তের বহিঃস্থ একটি বিন্দু। PQ রেখাংশ বৃত্তটিকে কেবল R বিন্দুতে ছেদ করে।

বৃত্তের জ্যা ও ব্যাস (Chord and diameter of a circle)

বৃত্তের দুইটি ভিন্ন বিন্দুর সংযোজক রেখাংশ বৃত্তটির একটি জ্যা। বৃত্তের কোনো জ্যা যদি কেন্দ্র দিয়ে যায় তবে জ্যাটিকে বৃত্তের ব্যাস বলা হয়।

অর্থাৎ বৃত্তের কেন্দ্রগামী যেকোনো জ্যা হলো ব্যাস।

বৃত্ত কি

চিত্রে, AB ও AC বৃত্তটির দুইটি জ্যা এবং বৃত্তটির কেন্দ্র। এদের মধ্যে AC জ্যাটি ব্যাস। কারণ জ্যাটি বৃত্তটির কেন্দ্রগামী। OA ও OC বৃত্তের দুইটি ব্যাসার্ধ সুতরাং, বৃত্তের কেন্দ্র প্রত্যেক ব্যাসের মধ্যবিন্দু।

অতএব প্রত্যেক ব্যাসের দৈর্ঘ্য 2r, যেখানে r বৃত্তটির ব্যাসার্ধ।

সহজভাবে,

বৃত্ত ও এর বিভিন্ন অংশ

বৃত্ত কাকে বলে ?

কোন সমতলে অবস্থিত একটি নির্দিষ্ট স্থির বিন্দু হতে চাপ, সর্বদা সমান দূরে থেকে অপর একটি চলন্ত বিন্দু এক বার ঘুরে এলে যে আবদ্ধ বক্র রেখা উৎপন্ন হয় তাকে বৃত্ত বলে।

নিচের একটি বৃত্ত ও এর বিভিন্ন অংশ চিহ্নিত করা হলো।

বৃত্তের বিভিন্ন অংশ

কেন্দ্ৰ কাকে বলে ?

কেন্দ্র (center): নির্দিষ্ট স্থির বিন্দু থেকে পরিধি সর্বদা সমান দূরে অবস্থান করে তাকে কেন্দ্র বলে। চিত্রে O কেন্দ্র।

ব্যাসার্ধ কাকে বলে ?

ব্যাসার্ধ (Radius): বৃত্তের কেন্দ্র থেকে পরিধি পর্যন্ত সরলরেখার দূরত্বকে ব্যাসার্ধ বলে। একই বৃত্তে একাধিক ব্যাসার্ধ আঁকা যায়। চিত্রে OA ব্যাসার্ধ ব্যাসার্ধ।

বৃত্তের ব্যাসার্ধ

ব্যাস কাকে বলে ?

ব্যাস (Diameter): বৃত্তের কেন্দ্র ভেদ করে যে সরলরেখা উভয় দিকে পরিধি পর্যন্ত যায় তাকে ব্যাস বলে। চিত্রে BC ব্যাস। ব্যাস বৃত্তকে দুইটি অর্ধবৃত্তে ভাগ করে।

সমবৃত্ত কাকে বলে ?

সমবৃত্ত (Same Circle): যে সববৃত্তের ব্যাসার্ধ সমান, তাদের সমবৃত্ত বলে।

জ্যা কাকে বলে ?

জ্যা (Chord): যে সরলরেখা বৃত্তের কেন্দ্র ভিন্ন পরিধির যেকোন দুই বিন্দুকে সংযুক্ত করে তাকে জ্যা বলে। চিত্রে AB ও CD ২ টি জ্যা।

জ্যা

বৃত্তের পরিধি কাকে বলে ?

পরিধি (Circumference): যে বক্র রেখা দ্বারা বৃত্তটি সীমাবদ্ধ হয়, তার দৈর্ঘ্যকে পরিধি বলে। চিত্রে O কেন্দ্রবিশিষ্ট বৃত্তে ABC এর দৈর্ঘ্যই বৃত্তটির পরিধি।

বৃত্তের পরিধি

বৃত্তের চাপ কাকে বলে ?

চাপ (Arc): বৃত্তের পরিধির যেকোন অংশকে বৃত্তের চাপ বলে। চিত্রে AB একটি চাপ।

বৃত্তের চাপ

অধিচাপ কাকে বলে ?

অধিচাপ (Major Arc): যে চাপ অর্ধবৃত্ত অপেক্ষা বড় তাকে অধিচাপ বলে। চিত্রে ABC একটি অধিচাপ।

বৃত্তের অধিচাপ

উপচাপ কাকে বলে ?

উপচাপ (Minor Arc): যে চাপ অর্ধবৃত্ত অপেক্ষা ছোট তাকে উপচাপ বলে। চিত্রে AB একটি উপচাপ।

বৃত্তের উপচাপ

অর্ধবৃত্ত কাকে বলে ?

অর্ধবৃত্ত (Semi Circle): বৃত্তের অর্ধেককে অর্ধবৃত্ত বলে। বৃত্তের ব্যাস বৃত্তকে সমান দুই ভাগ করে। এর প্রত্যেক ভাগকে অর্ধবৃত্ত বলে। চিত্রে BC ব্যাস বৃত্তকে দুইটি অর্ধবৃত্তে ভাগ করেছে।

অর্ধবৃত্তস্থ কোণ

বৃত্তস্থ কোণ কাকে বলে ?

বৃত্তস্থকোণ (Inscribe Angle): একটি কোণের শীর্ষবিন্দু কোন বৃত্তের পরিধিস্থ একটি বিন্দু হলে এবং কোণটির প্রত্যেক বাহুতে শীর্ষবিন্দু ছাড়াও বৃত্তের একটি বিন্দু থাকলে কোণটিকে একটি বৃত্তস্থ কোণ বলে। একে পরিধিস্থ কোণও বলা হয়। চিত্রে ∠ACB একটি বৃত্তস্থ কোণ।

বৃত্তস্থকোণ

 

কেন্দ্রস্থ কোণ কাকে বলে ?

কেন্দ্ৰস্থ কোণ (Central Angle): একটি কোণের শীর্ষবিন্দু কোন বৃত্তের কেন্দ্রে অবস্থিত হলে কোণটিকে ঐ বৃত্তের কেন্দ্রস্থ কোণ বলে। চিত্রে ∠AOB একটি কেন্দ্রস্থ কোণ।

কেন্দ্রস্থ কোণ

অর্ধবৃত্তস্থ কোণ কাকে বলে ?

অর্ধবৃত্তস্থ কোণ (Inscribed Angle in Semicircle): বৃত্তের ব্যাসের উপর দণ্ডায়মান বৃত্তস্থ কোণকে অর্ধবৃত্তস্থ কোণ বলে। অর্ধবৃত্তস্থ কোণ = এক সমকোণ বা ৯০°

চিত্রে ∠BAC একটি অর্ধবৃত্তস্থ কোণ।

অর্ধবৃত্তস্থ কোণ

সাধারণ স্পর্শক কাকে বলে ?

সাধারণ স্পর্শক: একটি সরলরেখা একাধিক বৃত্তকে স্পর্শ করলে ঐ রেখাকেই সাধারণ স্পর্শক বলে। চিত্রে MP বৃত্তদ্বয়ের সাধারণ স্পর্শক।

সাধারণ স্পর্শক

আমাদের শেষ কথা

বৃত্ত কি অথবা বৃত্ত কাকে বলে (Britto kake bole) এ বিষয়ে আশা করি আজকের আর্টিকেলে আপনারা জানতে পেরেছেন।

আর্টিকেলটি ভালো লেগে থাকলে অবশ্যই সোশ্যাল মিডিয়ায় বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না।

আর আর্টিকেলের সাথে জড়িত কোন প্রশ্ন থাকলে অবশ্যই নিচে কমেন্ট করে জানিয়ে দিবেন।

অবশ্যই পড়ুন –

Leave a Reply

Your email address will not be published.