BTS কি ? বিটিএস এর পরিচয় এবং সম্পূর্ণ তথ্য

BTS কি বা BTS মানে কি, বিটিএস কোথায় থাকে, বিটিএস এর পরিচয় এবং বিটিএস সদস্যদের নাম ও জন্ম তারিখ এসব বিষয়ে আজকের আর্টিকেলে আমি আলোচনা করব।

bts কি
BTS কি ? (About BTS in Bengali)

বর্তমানে বিটিএস নামটি অনেকের কাছে খুবই পরিচিত। বিশেষ করে তরুণ সমাজ BTS নিয়ে অধিক আগ্রহ প্রকাশ করে থাকে।

কেননা বিটিএস নামের এই ব্রান্ডটি আমাদের সকলের কাছে অধিক জনপ্রিয়। তাদের album গুলো আমাদের আকর্ষণ করে থাকে।

BTS অসংখ্য বিশ্ব রেকর্ড (world records) ভেঙ্গে নিজেকে একুশ শতকের পপ আইকন (pop icon of the 21th century) হিসাবে প্রতিষ্ঠিত করেছে।

তারা সারা বিশ্বে এই ধরনের পরিচিতি লাভ করতে সক্ষম হয়েছে মূলত তাদের প্রামাণিক এবং স্ব-রচিত সঙ্গীত, সুন্দর ও মনোমুগ্ধকর পারফরম্যান্স এবং তাদের ভক্তদের সাথে interact করার এক বিশেষ প্রক্রিয়ায় মাধ্যমে।

যদিও বিটিএস শব্দটি সারা বিশ্বে খুবই জনপ্রিয়, তবে বেশিরভাগ লোকই জানেন না যে বিটিএস একটি সংক্ষিপ্ত রূপ এবং বিটিএসের একটি পূর্ণরূপও রয়েছে।

তাই আজকের আর্টিকেলে BTS কি, BTS ফুল ফর্ম (BTS Full Form in Bangla), বিটিএস এর ইতিহাস (History of BTS), সদস্যদের নাম এবং তাদের জন্ম তারিখ (BTS members name and date of birth), জনপ্রিয় BTS অ্যালবামসমূহ এবং বিটিএস এর বিষয়ে অন্যান্য সকল তথ্যগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে।

আপনি যদি বিটিএস কি, BTS এর পূর্ণরূপ কি (BTS Full Meaning), বিটিএস কেন এত জনপ্রিয় এবং বিটিএস কি বাংলাদেশে আসবে এসব বিষয়ে জানতে চান তাহলে সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি পড়তে থাকুন।

BTS কি বা BTS মানে কি?

বিটিএস (BTS) হলো দক্ষিণ কোরিয়ান (South Korean) একটি ব্রান্ড (brand) দল।

BTS এর পুরো নাম হলো Bangtan Boys (ব্যাংটন বয়েজ) অথবা Bangtan Sonyandan (ব্যাংটন সোনিয়ান্দন)

বিটিএস এর সদস্য সংখ্যা ৭ জন।

সহজ ভাবে বলতে গেলে, বিটিএস হলো সাত সদস্যের একটি দক্ষিণ কোরিয়ান একটি প্রখ্যাত বয় ব্রান্ড।

চলুন নিচে BTS কি বা বিটিএস এর মানে কি এ বিষয়ে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

BTS এর পূর্ণরূপ কি ?

BTS meaning বা BTS full form হলো “BangTan Sonyeondan”। এই শব্দটি একটি কোরিয়ান (Korean) শব্দ যার অর্থ “বুলেটপ্রুফ বয় স্কাউটস (Bulletproof Boy Scouts)”।

অ্যাফিনিটি ম্যাগাজিনের সাথে একটি সাক্ষাৎকারে সময় একজন বিটিএস সদস্য যার নাম “জে-হোপ” বলেছিলেন যে, বিটিএস এর অর্থ গ্রুপটির ইচ্ছাকে প্রতিফলিত করে।

তিনি বর্ণনা করেছিলেন যে এটি স্টেরিওটাইপ, সমালোচনা এবং প্রত্যাশাগুলোকে অবরুদ্ধ করার প্রতীক যা আজকের প্রজন্মের কিশোর বা যুবকদের বুলেটের মতো লক্ষ্য করে।

2017 এর জুলাই মাসে, বিটিএস তাদের ব্র্যান্ডের লোগোটি পুনরায় ডিজাইন করেছে এবং শেয়ার করেছে যে BTS শব্দটি তাদের নতুন ব্র্যান্ড পরিচয়ের অংশ হিসাবে “Beyond the Scene” হিসেবে ব্যবহৃত।

BTS এর এই বর্ধিত অর্থটি সেইসব তরুণ BTS এর জন্য খুবই তাৎপর্যপূর্ণ যারা কোনো কিছুর জন্য স্থির হতে এবং সীমা অতিক্রম করতে অস্বীকার করে। এভাবে বিটিএসের পূর্ণরূপ দিয়ে বিটিএস তাদের ভক্তদের কাছে একটি ইতিবাচক মেসেজ দিয়েছে।

তাহলে আশা করি BTS কি এবং BTS এর পূর্ণরূপ কি এই বিষয়ে আপনারা উপরে ভালোভাবে জানতে পেরেছেন।

BTS কে বা কারা ?

BTS বা Bangtan Sonyeondan, 2010 সালে গঠিত একটি সাত সদস্যের দক্ষিণ কোরিয়ান বয় ব্যান্ড গ্রুপ।

BTS এর প্রথম অ্যালবামের নাম হলো “2 Cool 4 Scool” যার মাধ্যমে তারা 2013 সালের জুন মাসে বিগ হিট এন্টারটেইনমেন্ট (Big Hit Entertainment যা এখন Big Hit Music হিসাবে পুনঃব্র্যান্ড করা হয়েছে) এর অধীনে আত্মপ্রকাশ করে।

দক্ষিণ কোরিয়ার এই বয় ব্রান্ডটি আত্মপ্রকাশের পর থেকেই সারা বিশ্বে কোটি কোটি ভক্তের (fan) মন জয় করেছে।

মূলত বিটিএস প্রাথমিকভাবে একটি হিপ হপ (hip hop) ব্যান্ড গ্রুপ হিসাবে শুরু হয়েছিল।

কিন্তু তাদের সঙ্গীতের স্টাইল সময়ের সাথে সাথে বিকাশ লাভ করেছে। তাদের সঙ্গীতের মধ্যে কে-পপ (কোরিয়ান জনপ্রিয় সঙ্গীত), পপ (জনপ্রিয় সঙ্গীত), R&B (রিদম এবং ব্লুজ) এবং EDM (ইলেক্ট্রনিক ড্যান্স মিউজিক) এর মতো আরও অনেক ধারা অন্তর্ভুক্ত হয়েছে।

বিটিএস এর রচিত গানগুলোর বিষয়গুলো প্রায়শই ব্যক্তিগত এবং সামাজিক ভাষ্য, স্কুল-বয়সের যুবকদের সমস্যা এবং বয়সের আগমন, ক্ষতি, নিজেকে ভালবাসার যাত্রা এবং ব্যক্তিত্ববাদের উপর দৃষ্টি নিবদ্ধ করে।

এর কারণে, বিটিএস কোটি কোটি যুবকদের জন্য যুব প্রতীক এবং অনুপ্রেরণা হয়ে উঠেছে।

নোট: বিটিএস আনুষ্ঠানিকভাবে “2 Cool 4 Scool” অ্যালবামের অধীনে “No More Dream” শিরোনামের একটি গান দিয়ে আত্মপ্রকাশ করেছে। এটি প্রায় 50,000 কপি বিক্রি করে এবং তারপরে প্রতিটি গানের সাথে বিটিএস অপ্রতিরোধ্য হয়ে যায়। তাদের গানের কথাগুলো প্রথম গান থেকেই ছিল অনুপ্রেরণামূলক।

প্রতি বছর এই ব্যান্ডটি আরও বেশি সাফল্য খুঁজে পায়, 2020 সাল গ্রুপটির জন্য পূর্ণ সাফল্যে পরিণত হয়।

তাদের গ্র্যামিস পারফরম্যান্সের পর, ফেব্রুয়ারি 2020 এ ব্যান্ডটি তাদের চতুর্থ কোরিয়ান ভাষার স্টুডিও অ্যালবাম “Map of the Soul: 7” প্রকাশ করে। অ্যালবামটি একটি সমালোচনামূলক সাফল্য ছিল, যা বিলবোর্ড 200 চার্টে গ্রুপটিকে তার চতুর্থ নম্বর অ্যালবাম দিয়েছে।

2020 এর আগস্টে গ্রুপটি তাদের প্রথম ইংরেজি ভাষার গান “Dynamite” প্রকাশ করে, যা বিটিএসকে বিলবোর্ড হট 100 চার্টে তাদের প্রথম নম্বর এক গান দিয়েছে।

এছাড়াও “Dynamite” এর মিউজিক ভিডিওটি প্রিমিয়ার হওয়ার পর থেকে 24 ঘন্টার মধ্যে সবচেয়ে বেশি ভিউ হওয়া YouTube ভিডিও হয়ে উঠেছে৷

বিটিএসরা আরও যেসব নামে অধিক পরিচিত সেগুলো হলো:

“BTS কি?”

  • বাংতান বয়েজ (Bangtan Boys)
  • বাংতান সোনিয়োন্দান (Bangtan Sonyeondan)
  • বিয়ন্ড দ্যা স্যিন (Beyond the Scene)
  • বুলেটপ্রুফ বয় স্কাউটস (Bulletproof Boy Scouts)

এখন চলুন নিচে বিটিএস কারা, এদের পরিচয় এবং BTS এর সদস্য সংখ্যা কত এর বিষয়ে সবকিছু বাংলায় জেনে নিই।

দক্ষিন কোরিয়ান বিখ্যাত বয় ব্রান্ড (BTS) এর সাতজন সদস্যের নাম এবং এদের সংক্ষিপ্ত পরিচয় নিচে আমি তুলে ধরবো।

বিটিএস এর সাতজন সদস্যের নাম (Meet the 7 member of BTS)

বিটিএস ব্রান্ডটিকে বেশিরভাগ লোকেরা “ব্যাংটান বয়েজ” হিসাবেও উল্লেখ করে।

যেসব লোকেরা বা ভক্তরা তাদের গান শোনেন তাদের “বিটিএস আর্মি (BTS Army)” হিসাবে উল্লেখ করা হয়, যেখানে ARMY এর পূর্ণরূপ হলো Adorable Representative MC for Youth। BTS ARMY কি ? বিটিএস আর্মি কারা এই বিষয়ে জানতে আর্টিকেলটি পড়ুন।

তাহলে BTS কি এবং কাদের বিটিএস আর্মি বলা হয় এই বিষয়ে আশা করি আপনারা ভালোভাবে জানতে পেরেছেন। এখন চলুন বিটিএস এর সাতজন প্রাথমিক সদস্যের নাম এবং তাদের পরিচয় জেনে নেওয়া যাক।

সাতজন বিটিএস সদস্যের নাম:

  1. Jin (জিন)
  2. Suga (সুগা)
  3. J-Hope (জে হোপ)
  4. RM (আরএম)
  5. Jimin (জিমিন)
  6. V (ভি)
  7. Jungkook (জাংকুক)

চলুন সংক্ষিপ্ত আকারে এদের পরিচয় জেনে নিই।

আরএম (কিম নামজুন)

RM BTS
Collected from Wikipedia.

আরএম এর জন্ম ১৯৯৪ সালের ১২ ই সেপ্টেম্বর দক্ষিণ কোরিয়ার সিউলে জন্মগ্রহণ করেন। আরএম-এর পুরো কোরিয়ান নাম কিম নাম জুন।

তিনি দক্ষিণ কোরিয়ান র‍্যাপার, সংগীত রচয়ীতা এবং রেকর্ড প্রডিউসার। তিনি তার স্ট্রেজ নাম আরএম নামে পরিচিত।

ইংরেজি এবং কোরিয়ান উভয় ভাষাতেই তিনি সাবলীল, RM বলেছেন যে তিনি CNN, BBC এবং টিভি শো ফ্রেন্ডস এর পুরানো পর্ব দেখার সময় ইংরেজি শিখেছেন।

তিনি কোরিয়ান বিখ্যাত বয় ব্র্যান্ড BTS এর একজন সংগীতশিল্পী। তিনি একজন কোরিয়ান এবং তার বর্তমান বয়স 27 বছর। আরএম বিটিএসের leader।

জিন (কিম সকজিন)

Jin BTS
Collected from Wikipedia.

Jin ১৯৯২ সালের ৪ ডিসেম্বর জন্মগ্রহণ করেন। তিনি একজন সংগীত রচয়িতা এবং দক্ষিণ কোরিয়ান গায়ক।

জিন বর্তমানে সবচেয়ে বড় BTS সদস্য এবং তার আসল নাম “কিম সিওক-জিন”। তিনি 4 ডিসেম্বর 1992 সালে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। তিনি তার স্ট্রেজ নাম জিন নামে পরিচিত।

জিন জুন 2013 সাল থেকে BTS এর সদস্য। তিনি বিটিএস এর সবচেয়ে পুরাতন সদস্য। তিনি যখন চলচ্চিত্র এবং চলচ্চিত্র সম্পর্কে অধ্যয়ন করছিলেন তখন তাকে বিগ হিট এন্টারটেইনমেনন্টে যোগদান করার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল।

জিন 2016 সালের ১০ই অক্টোবর বিটিএস এর সাথে তার একক track প্রকাশ করেন, যার শিরোনাম ছিলো Awake

তিনি দক্ষিণ কোরিয়ান প্রখ্যাত বয় ব্রান্ড BTS এর একজন সংগীতশিল্পী। বর্তমানে তার বয়স 29 বছর।

সুগা

Suga BTS
Collected from Wikipedia.

SUGA হলো BTS এর একজন প্রাথমিক র‌্যাপার এবং তার আসল নাম হলো “Min Yoon-gi”। তিনি ১৯৯৩ সালের ৯ মার্চ জন্মগ্রহণ করেন।

SUGA 2013 সালে BTS সদস্য হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে। তিনি আগস্ট D (সাধারণত বয়-ব্যান্ড BTS-এর SUGA নামে পরিচিত) শিরোনামে 15 আগস্ট 2016 তারিখে তার প্রথম একক মিক্সটেপ প্রকাশ করেন।

এ কারণেই তিনি SUGA নামে পরিচিত এবং তার অন্যান্য স্ট্রেজ নাম আগস্ট D নামেও তিনি পরিচিত।

র‌্যাপার ছাড়াও সুগা হলেন একজন গীতিকার এবং রেকর্ড প্রযোজক। কোরিয়া মিউজিক কপিরাইট অ্যাসোসিয়েশন SUGA কে 100 টিরও বেশি গানের জন্য গীতিকার এবং প্রযোজক হিসাবে কৃতিত্ব দেয়।

তিনি একজন দক্ষিণ কোরিয়ান সংগীত রচয়িতা, র‍্যাপার এবং রেকর্ড প্রডিউসার।

তিনি দক্ষিণ কোরিয়ান প্রখ্যাত বয় ব্রান্ড BTS এ 2013 সালে যোগ দেন। বর্তমানে তার বয়স 28 বছর এবং তার জাতীয়তা হলো কোরিয়ান।

জে-হোপ

J-Hope
Collected from Wikipedia.

BTS এর আরেক সদস্যের নাম J-Hope। তার আসল নাম হলো “জং হো-সিওক”, তবে তিনি তার স্ট্রেজ নামে (জে-হোপ) অধিক পরিচিত।

তিনি 1994 সালের 18 ফেব্রুয়ারী জন্মগ্রহণ করেন। জে-হোপ বিগ হিট এন্টারটেইনমেন্টের অধীনে 2013 সালে বিটিএস সদস্য হিসাবে আত্মপ্রকাশ করেন। বিটিএসে যোগদানের আগে তিনি একটি স্ট্রিট ডান্সিং গ্রুপের সদস্য ছিলেন।

2 মার্চ, 2018 তারিখে জে-হোপ Hope World নামে তার প্রথম একক মিক্সটেপ প্রকাশ করেছিলেন। তিনি একজন সংগীত রচয়িতা, দক্ষিণ কোরিয়ার র্যাপার এবং নৃত্যশিল্পী।

তিনি 2013 সালে কোরিয়ান বিখ্যাত বয় ব্র্যান্ড BTS এ যোগ দেন। তার বর্তমান বয়স 27 বছর।

জিমিন

Jimin BTS
Collected from Wikipedia.

পার্ক জিমিন যিনি জিমিন নামে পরিচিত। তিনি দক্ষিণ কোরিয়ান একজন সংগীত রচয়িতা, নৃত্যশিল্পী এবং গায়ক।

তিনি 1995 সালের 13ই অক্টোবর জন্মগ্রহণ করেন। জিমিনও 2013 সালে বিটিএস এর সদস্য হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন।

তিনি 2016 সালে Lie শিরোনামে তার প্রথম একক গান প্রকাশ করেন। এটি Wings নামে BTS এর দ্বিতীয় কোরিয়ান স্টুডিও অ্যালবামের অংশ হিসেবে প্রকাশিত হয়েছিল।

তিনি বিটিএস এর একজন সংগীতশিল্পী ও নৃত্যশিল্পী। 2013 সালে তিনি BTS এ যোগ দেন। বর্তমানে তার বয়স 26 বছর।

ভি

V BTS
Collected from Wikipedia.

ভি, যার আসল নাম “কিম তাই-হিউং”। তিনি ১৯৯৫ সালের ৩০ ডিসেম্বর জন্মগ্রহণ করেন।

তিনি একজন কোরিয়ান গায়ক, অভিনেতা এবং সংগীত রচয়িতা। তিনি কোরিয়ান প্রখ্যাত boy brand BTS এর একজন সংগীতশিল্পী এবং 2013 সালে যোগ দেন। বর্তমানে তার বয়স 25 বছর।

ভি একটি অডিশন দেওয়ার পর বিগ হিট এন্টারটেইনমেন্টে একজন প্রশিক্ষণার্থী হিসেবে যোগদান করেন।

তিনি 2013 সালে বিটিএস এ আত্মপ্রকাশ করেছিলেন, কিন্তু অন্যান্য সদস্যদের নাম ইতিমধ্যে ঘোষণা করা হলেও তার নাম গোপন রাখা হয়েছিল।

বিগ হিট এন্টারটেইনমেন্ট এজেন্সি তাকে “No More Dream” ট্র্যাকটির মাধ্যমে আত্মপ্রকাশ করার সময় একটি সারপ্রাইজ দিয়ে তাকে একজন গোপন সদস্য হিসাবে পরিচয় করিয়ে দেয়।

তিনি 2016 সালে বিটিএস এর দ্বিতীয় কোরিয়ান স্টুডিও অ্যালবাম Wings এ তার প্রথম একক গান প্রকাশ করেন, যার নাম Stigma।

জংকুক

Jungkook BTS
Collected from Wikipedia.

জন জংকুক যিনি তার স্টেজ নাম জংকুক নামে বেশি পরিচিত।

জংকুক বর্তমানে সর্বকনিষ্ঠ BTS সদস্য এবং তার আসল নাম “জিওন জুং-কুক”। তিনি ১৯৯৭ সালের ১ সেপ্টেম্বর জন্মগ্রহণ করেন। তিনি কোরিয়ান একজন গায়ক এবং সংগীত রচয়িতা।

যদিও জংকুক বিভিন্ন বিনোদন সংস্থা থেকে বেশ কয়েকটি কাস্টিং অফার পেয়েছিলেন, তিনি বিগ হিট এন্টারটেইনমেন্টের অধীনে একজন প্রশিক্ষণার্থী হতে বেছে নিয়েছিলেন। কারণ তিনি বিটিএসের অন্য একজন সদস্য RM দ্বারা অনুপ্রাণিত হয়েছিলেন।

তিনি তার প্রথম একক পপ ট্র্যাক/গান প্রকাশ করেন 2016 সালে Wings অ্যালবামে, যার শিরোনাম হলো Begin।

তাহলে বন্ধুরা, BTS কি এবং বিটিএস এর সাতজন সদস্যের পরিচয় আশা করি উপরে আপনারা জানতে পেরেছেন। বিটিএস সম্পর্কে অন্যান্য তথ্যগুলো নিচে জেনেনিন।

বিটিএস কেন এত জনপ্রিয়?

বিটিএস 2013 সালে প্রতিষ্ঠিত হয় 2015 সালের ওয়ার্ল্ড ট্যুরে এই প্রাণ সারা পৃথিবীতে পরিচিত হতে শুরু করে।

বর্তমানে তাদের জনপ্রিয়তা অধিক পরিমাণে রয়েছে তবে এ জনপ্রিয়তা অর্জনের জন্য তাদের অনেক প্রতিকূলতা কাটিয়ে আসতে হয়েছে তাদের সারাবিশ্বে প্রচুর ফ্যান রয়েছে তাদের ফ্যানদের BTS Army বলা হয়ে থাকে।

তাহলে BTS Army কি এ বিষয়ে আশাকরি জানতে পেরেছেন।

বিটিএস তাদের সেরা কিছু মিউজিক অ্যালবাম এর মাধ্যমে সারাবিশ্বে অধিক জনপ্রিয় হয়ে ওঠে।

উইকিপিডিয়া থেকে এ বিষয়ে আমি কিছু তথ্য সংগ্রহ করেছি এবং এসবের বিষয়ে নিচে এখন আমি আপনাদের বলব।

তাদের গানগুলোতে বিভিন্ন সংগীতের ধরন প্রকাশ পায় যদিও তাদের সঙ্গীতগুলো হিপ হপ গ্রুপের।

খুব সুন্দর নাম গানের মাধ্যমেই তারা মনস্তাত্ত্বিক বিষয়, নিজেকে ভালোবাসার গুরুত্ব এবং সাহিত্য এসব বিষয় তুলে ধরে।

তারা পুরো দুনিয়ার সামনে হাজির হয় দুই কুল 4 স্কুল অ্যালবাম নিয়ে 2013 সালে।

এর পরে তাদের সর্বপ্রথম কোরিয়ান স্টুডিও অ্যালবাম ডার্ক এন্ড ওয়ার্ল্ড এবং জাপানিজ স্টুডিও অ্যালবাম “ওয়েক আপ” প্রকাশিত হয় 2014 সালে

তারা পুরো বিশ্বের সংগীত জগতে নিজেদের বিখ্যাত জায়গা করে নেয় 2017 সালে।

2017 সালের লাভ ইয়োরসেলফ: হার (২০১৭) অ্যালবামটি সারা বিশ্বের মানুষের কাছে ছড়িয়ে পড়ে।

তারা মাইক ড্রপ গানটির জন্য Korean Group Recording Industry Association of America থেকে সার্টিফিকেট গ্রহণ করে।

বিটিএস এর জনপ্রিয় অ্যালবামগুলোর তালিকা

কিছু জনপ্রিয় বিটিএস অ্যালবাম এবং সেগুলোর প্রকাশের তারিখ নিচে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে।

অ্যালবামের নাম রিলিজের তারিখ
2 Cool 4 Skool 12 June, 2013
O!RUL8,2? 11 September, 2013
Skool Luv Affair 12 February, 2014
Dark & Wild 19 August, 2014
The Most Beautiful Moment in Life 29 April, 2015
WINGS 10 October, 2016
You Never Walk Alone 13 February, 2017
Love Yourself 18 September, 2017
Map of the Soul 12 April, 2019
BTS World Original Soundtrack 28 June, 2019
Dynamite 20 August, 2020
BE 20 November, 2020
Butter 21 May, 2021
Permission to Dance 8 July, 2021

বিটিএস এর কিছু রেকর্ড এবং অর্জন

  • AMA (আমেরিকান মিউজিক অ্যাওয়ার্ড) 2021 সালে “আর্টিস্ট অফ দ্য ইয়ার” শীর্ষক পুরষ্কার জিতে BTS প্রথম এশিয়ান গ্রুপ হয়ে ইতিহাস সৃষ্টি করেছে৷
  •  BTS সংগীত এবং সোশ্যাল মিডিয়ার ক্ষেত্রে “গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড” এ 23টি রেকর্ড অর্জন করেছে।
  • BTS সেরা পপ ডুও/গ্রুপ পারফরম্যান্স বিভাগে দুইবার (2021, 2022) Grammy পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছে।
  • গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড ছাড়াও বিটিএস Soptify, Twitter এবং YouTube এর জন্য আরও কয়েকটি রেকর্ড ভেঙেছে।

বিটিএস আমাদের প্রত্যাশার চেয়ে বেশি রেকর্ড অর্জন করেছে।

বিটিএস সম্পর্কে আকর্ষণীয় তথ্যসমূহ

বিটিএস এর সম্পর্কে কিছু আকর্ষণীয় তথ্য নিচে উল্লেখ করা হয়েছে।

  • BTS দক্ষিণ কোরিয়ার অর্থনীতিতে বছরে প্রায় $5 বিলিয়ন ডলার যোগ করে। এটি দক্ষিণ কোরিয়ার সমগ্র অর্থনীতির প্রায় অর্ধ শতাংশ।
  • বিটিএস সম্পূর্ণ সেট আপ করতে প্রায় ৩ বছর সময় লেগেছে। যদিও বিগ হিট এন্টারটেইনমেন্ট 2010 সালে একটি গ্রুপ স্থাপনের জন্য অডিশন শুরু করে এবং BTS আনুষ্ঠানিকভাবে 2013 সালে আত্মপ্রকাশ করে।
  • টুইটার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি BTS ইমোজি রয়েছে, যেখানে BTS লেখাটি বুলেটপ্রুফ ভেস্টের মাঝখানে প্রদর্শিত হচ্ছে।
  • পার্ক জিমিন অনেকগুলো ডাকনামে পরিচিত। যেমন – মোচি, চিমচিম, প্রিন্স অফ বুসান, জিমিনি ইত্যাদি।
  • জংকুক যখন তিনি বিটিএসে আত্মপ্রকাশ করেন তখন তার বয়স ছিল মাত্র ১৫ বছর। তিনি গোল্ডেন মাকনা (Maknae) ডাকনামেও পরিচিত, যার অর্থ অনেক প্রতিভাসম্পন্ন সর্বকনিষ্ঠ ব্যক্তি।
  • BTS শুধুমাত্র তাদের গানে পারফর্ম করে না বরং তাদের নিজস্ব সংগীত লেখে, রেকর্ড করে এবং সম্পাদনা করে।
  • বিটিএস এর কোরিয়ান স্টুডিও অ্যালবাম 2016 সালে Wings নামে প্রকাশিত হয়েছিল যার দক্ষিণ কোরিয়ায় তাদের প্রথম এক মিলিয়ন কপি বিক্রি হয়েছিল।

BTS এর সোশ্যাল মিডিয়া প্রোফাইল গুলোর তালিকা

বিটিএস কি বাংলাদেশে আসবে?

ব্রিটিশরা জানে যে সারা বিশ্বে তাদের প্রচুর ফ্যান রয়েছে যাদের বিটিএস আর্মি বলা হয়ে থাকে।

যদি প্রশ্ন করা হয় যে, বিটিএসরা কখন বাংলাদেশে আসবে?

এই প্রশ্নের সঠিক উত্তর আমি আপনাদের দিতে পারিনা।

তবে আমি একজন বিটিএস আর্মি হিসেবে idolbd.top সাইটের একটি আর্টিকেল থেকে জানতে পারি যে,

বিটিএসদের বাংলাদেশে আসা নিয়ে একজন বাংলাদেশি আর্মি লিখেছেন।

একজন বাংলাদেশি আর্মি হিসাবে আমি সর্বদা ভাবতাম, “বিটিএস কি কখনও বাংলাদেশে আসবে?” তারা খুব তাড়াতাড়ি এখানে আসবে বলে আমি মনে করি না। ভবিষ্যতে তারা আসতে পারে। এখানে অনেকগুলি BTS Armey রয়েছে এবং তাদের বেশিরভাগ কিশোর কিশোরী। তবে কিছু প্রাপ্তবয়স্ক আর্মিও রয়েছে এবং আমি মনে করি বাংলাদেশে fanbase দিন দিন বেড়েই চলছে।

সর্বশেষ

আশা করি BTS কি, বিটিএস কারা, বিটিএস এর পরিচয় এসব বিষয়ে আমার আর্টিকেলে জানতে পেরেছেন।

বিটিএস (ব্যাংটান সোনিওন্দন) হলো একটি বিশ্ব জনপ্রিয় দক্ষিণ কোরিয়ান বয় ব্যান্ড গ্রুপ যা সাত সদস্যের সমন্বয়ে গঠিত।

বিটিএস সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মগুলোকে কাজে লাগিয়ে বিশ্বব্যাপী বিশাল ফ্যান বেস তৈরি করেছে। বিটিএস বিশ্বব্যাপী বিভিন্ন পুরস্কার জিতেছে।

আমি উইকিপিডিয়া সহ ইন্টারনেটের অন্যান্য সাইট থেকে তথ্য সংগ্রহ করে এই আর্টিকেলটি তৈরি করেছি।

যদি আপনারা জানতে চান যে, বিটিএস কোন দেশের তাহলে এর উত্তর হলো কোরিয়ান।

“BTS কি?” এই বিষয়ে যদি আজকের আর্টিকেলটি আপনাদের ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই নিচে কমেন্ট করে জানিয়ে দিবেন।

অবশ্যই পড়ুন –

15 thoughts on “BTS কি ? বিটিএস এর পরিচয় এবং সম্পূর্ণ তথ্য”

    1. BTS হলো একটি Boy Brand যার সম্পর্কে আর্টিকেলে বিস্তারিত উল্লেখ করা হয়েছে।

  1. আমি অনেক আগে থেকেই BTS কে চিনি তবুও গুগলে এসে আরো অনেক কিছু জানতে পারলাম । জানিনা আপনি কে কিন্তু আপনাকে অনেক ধন্যবাদ 🥰 এতো সুন্দর করে লেখার জন্য । Purple you 💜💜

  2. Yeah amio jane and ami akjon bts army ora onak kosto ar safollo kor a ai porjon to poycat a para ca i love you BTS always and i proud of u☺☺☺😎

  3. Thanks for ur article Bro. I’m a Big fan of BTS. I love the seven members of BTS but my bias is Kim Taehyung 💚
    I enjoyed their songs as well another K-pop Brand’s. They are doing great. I Support them amd I proud to be BTS Army.

  4. BTS নিয়ে আপনার লেখা পোস্টটি অনেক সুন্দর হয়েছে। এরকম একটি পোস্ট শেয়ার করার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *