FB ID Hack Korar Sohoj Upay: ফেসবুক আইডি হ্যাক করার নিয়ম

FB ID Hack Korar Sohoj Upay:

FB ID Hack Korar Sohoj Upay

হ্যাকিং (Hacking)! এই শব্দটি আমাদের সকলের কাছে অনেক পরিচিত। ইন্টারনেট, ওয়েবসাইট, নেটওয়ার্ক, ব্যক্তিগত তথ্য চুরি ইত্যাদির সাথে হ্যাকিং কথাটি জড়িত।

আর বর্তমান প্রজন্মের ছেলেমেয়েরা তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রচুর পরিমাণে ব্যবহার করছে। তাই তরুণ প্রজন্মের কাছে একই নামক বিস্ময়কর জিনিসটি নিয়ে অধিক আগ্রহ রয়েছে।

হ্যাকিং কি? হ্যাকার করা? কিভাবে একজন হ্যাকার হওয়া যায়? হ্যাকিং কি ভালো না খারাপ? হ্যাকিং এর ভালো এবং খারাপ দিক ইত্যাদি বিষয় নিয়ে সকলের অধিক কৌতূহল কাজ করে থাকে।

আর Facebook account hacking (ফেসবুক আইডি হ্যাকিং) এর কথা উঠলে সবাই অনেক আগ্রহ প্রকাশ করে থাকে এই জিনিসটা নিয়ে।

এজন্য ফেসবুক আইডি হ্যাক করার সহজ উপায় (FB ID Hack Korar Sohoj Upay), ফেসবুক আইডি হ্যাক না হওয়ার উপায় এবং Facebook আইডি হ্যাক হলে করণীয় কি এসব বিষয়ে আজকের আর্টিকেলে আমি সম্পূর্ণ আলোচনা করতে চলেছি।

Facebook ID Hacking – ফেসবুক আইডি হ্যাকিং

ফেসবুক আইডি হ্যাক করার নিয়ম বা কিভাবে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক করা যায়? এই প্রশ্নের উত্তর জানার আগে আমাদের এটা জানতে হবে যে, ফেসবুক আইডি হ্যাক করা কি সত্যিই সম্ভব? (Is it really possible to hack Facebook ID?)

দেখুন, বর্তমানে কিছু লোকজন বা ছেলে-মেয়ে হ্যাকিং ব্যাপারটাকে যতটা সহজ মনে করে থাকেন, হ্যাকিং এর ব্যাপারটা ততটা সহজ নয়।

আমি মাঝে মাঝেই শুনে থাকি ছেলে মেয়েদের মধ্যে কোন ছোটখাটো দ্বন্দ্ব সৃষ্টি হলে একে অপরকে তার ফেসবুক আইডি হ্যাক করার হুমকি দেখিয়ে থাকে।

এই বিষয়টি আসলে অনেক হাস্যকর মনে হয়। Hacking হলো অনেক advance lavel এর কাজ। আর এটা চাইলেই যে কেউ কখনোই করতে পারে না।

হ্যাকিং কি? (What is Hacking)

ফেসবুক আইডি হ্যাকিং

হ্যাকিং হলো জার্মানি শব্দ। হ্যাকিং হলো মূলত একটি কম্পিউটার সিস্টেম বা প্রযুক্তিগত জ্ঞানকে কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন ধরনের বাধা বা সমস্যাকে অতিক্রম করা।

এটির মূল উদ্দেশ্য হলো মানুষের উপকার করা। তবে ব্লাক হ্যাট হ্যাকাররা (Black Hat Hacker) এটাকে ভুল ভাবে কাজে লাগায় এবং তাদের দক্ষতাকে কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন খারাপ কাজ করে থাকে ও মানুষের কিংবা কোন সংস্থার ব্যক্তিগত তথ্য চুরি করে বা নষ্ট করে।

হ্যাকিংয়ের নেতিবাচক উদ্দেশ্য হলো, অনুমোদন ছাড়া নেটওয়ার্ক এর ভেতর প্রবেশ করে ব্যবহারকারীর সিস্টেম এক্সেস করা এবং কারো কোন তথ্য বা ফাইল চুরি অথবা পরিবর্তন করা।

FB ID Hack Korar Sohoj Upay – ফেসবুক আইডি হ্যাক করার নিয়ম

হ্যাকিং করতে হলে অনেক Programming Language জানতে হয় এবং সেগুলোর বিষয়ে ভালো জ্ঞান ধারণা থাকতে হয়।

সহজ ভাবে বলতে গেলে, হ্যাকিং করতে প্রযুক্তি সম্পর্কে খুঁটিনাটি সকল প্রকার তথ্য জানতে হবে, তাছাড়া এটি করা সম্ভব নয়।

ধরুন একটি সিস্টেম বা ওয়েবসাইট তৈরি করা হয়েছে এবং অনেক higher lavel এর security বা নিরাপত্তা সেই ওয়েবসাইটে দেওয়া হয়েছে।

আর সেটাকে হ্যাক করতে হলে সেই নিরাপত্তা ব্যবস্থা বা firewall অতিক্রম করে সিস্টেমে প্রবেশ করতে হয়। তাহলে দেখুন কতটা প্রযুক্তিগত জ্ঞান প্রয়োজন হ্যাকিং এর জন্য।

যদি কথা আসে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাকিং এর তাহলে এটা আরো জটিল কাজ ফেসবুক বিশ্বের সবচেয়ে বড় এবং জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ওয়েবসাইট। সুতরাং ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা বা developer এর ব্যবহারকারীদের জন্য কম নিরাপত্তা নিশ্চিত করেননি।

তবে আসলেই কি ফেসবুক আইডি হ্যাক করা যায়? হ্যাঁ, করা যায়। মাঝে মধ্যেই ফেসবুক হ্যাকিং এর ঘটনা ঘটে থাকে।

তবে কোনভাবেই ডিরেক্টলি বা সহজে ফেসবুক আইডি হ্যাক করা সম্ভব নয়। এর জন্য প্রযুক্তি (technology) বিষয়ে এডভান্স লেভেলের দক্ষতা (knowledge) থাকা আবশ্যক।

ফেসবুক আইডি হ্যাক করার জন্য যে পদ্ধতি গুলো রয়েছে সেগুলো সম্পূর্ণ illigal পদ্ধতি।

আর এসব পদ্ধতির ব্যবহার করা অবশ্যই অনৈতিক কাজ। আর এই কাজের জন্য আপনাকে কারাগারে থাকতে হতে পারে। এ বিষয়ে ভালোভাবে বোঝার জন্য সম্পন্ন আর্টিকেলটি পড়ুন।

Fb id hack করা মুখের কথা নয়। কেননা Facebook এর higher lavel security system রয়েছে। তবে কোন ক্ষেত্রে আবার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক করা যায়। তবে সাধারণ মানুষের কাছে তা কখনো সম্ভবপর নয়।

আপনি যদি ইউটিউবে অথবা গুগলে “Fb id hack korar sohoj upay” লিখে সার্চ করেন তাহলে আপনি দেখে থাকবেন, সেখানে বলা হয়ে থাকে যে, তারা যে উপায় গুলো দেখাবে সে অনুযায়ী কাজ করলে আপনি ফেসবুক একাউন্ট হ্যাক করতে পারবেন।

অথবা কেউ কেউ তো 100% গ্যারান্টি দিয়ে থাকে এবং 10 মিনিটে নাকি ফেসবুক আইডি হ্যাকিং করা সম্ভব। এগুলো সবই ভুয়া টেকনিক মানুষকে দেখানো হয়ে থাকে।

আসলে এত সহজে একটা ফেসবুক অ্যাকাউন্ট কে হাতিয়ে নেওয়া কোন ভাবেই পসিবল না। আর সাধারণ মানুষের পক্ষে তো সেটা কখনোই সম্ভব নয়, যারা শুধু ইন্টারনেট ব্রাউজিং, ইউটিউব এবং সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং করে থাকেন।

আবার ইউটিউব বা গুগলে এমনও বলা হয়ে থাকে যে, আপনি যার ফেসবুক আইডি হ্যাক করতে চান তার আইডির লিংক একটি ওয়েবসাইটে প্রবেশ করালে সেখানে আপনি তার একাউন্টের পাসওয়ার্ড দেখতে পারবেন। এভাবে কখনোই ফেসবুক হ্যাকিং করা যায় না।

তবে আপনি যদি সত্যিই ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক করতে চান অথবা হ্যাকিং শিখতে চান তাহলে আপনাকে অবশ্যই একজন দক্ষ প্রোগ্রামার হয়ে উঠতে হবে।

বিভিন্ন প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ যেমন: HTML, CSS, PHP, JavaScript, Python, C-Programming ইত্যাদি প্রোগ্রামিং ভাষা ভালোভাবে আয়ত্ত করতে হবে।

প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ

আর programming language ভালোভাবে শিখলে আপনি ফেসবুক হ্যাকিং এর কথা চিন্তা করতে পারেন।

তবে মনে রাখবেন, হ্যাকিং সম্পর্কিত যেকোনো কাজ সাইবার ক্রাইম নামে অভিহিত করা হয়। কোন ধরনের সাইবার ক্রাইম করতে গিয়ে ধরা পড়লে আপনি সাইবার নিরাপত্তা আইনের ফেসে যেতে পারেন‌ এবং আপনার প্রচুর টাকা জরিমানা এমনকি জেল পর্যন্ত হতে পারে।

তবে হ্যাকাররা যেভাবে ফেসবুক আইডি হ্যাক করে থাকে সে বিষয়ে নিচে আমি আপনাদের কিছু ধারনা দিব।

হ্যাকাররা কোন কোন পদ্ধতিতে ফেসবুক আইডি হ্যাক করতে পারেন?

  1. Weak password (Brute Force Attack)
  2. Fishing
  3. Remote Keylogers
  4. Denial of Service (DoS)
  5. Man in The Middle (MIIM)

নিচে প্রথম দুইটি বিষয়ে আমি সংক্ষিপ্তভাবে আলোচনা করব।

1. Brute Force Attack (ব্রুট ফোর্স অ্যাটাক)

Brute Force Attack - FB ID Hack

যদি আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট এর পাসওয়ার্ড অনেক সহজ এবং ছোট হয়, তাহলে হ্যাকাররা ব্রুট ফোর্স অ্যাটাকের মাধ্যমে সহজেই আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে নিতে পারেন।

অনেকে nikename, phone number, pet name, a single word এই ধরনের পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে থাকেন। তাদের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বুট ফোর্স অ্যাটাকের মাধ্যমে হ্যাক করা অনেক সহজ।

Brute Force Attack রোবটের মাধ্যমে পরিচালনা করা হয়। এই প্রক্রিয়ায় হ্যাকারদের ডাটাবেজে আগে থেকেই মিলিয়ন মিলিয়ন পাসওয়ার্ড লিখে সেভ করা থাকে।

অর্থাৎ তাদের লক্ষ্য লক্ষ্য পাসওয়ার্ডের একটি ডাটাবেজ থাকে যখন এই অ্যাটাক পরিচালনা করা হয় তখন রোবটের মাধ্যমে অটোমেটিক সেই ডাটাবেসে থাকা প্রত্যেকটি পাসওয়ার্ড এক এক করে টাইপ করে লগইন করার চেষ্টা করা হয়।

তাই সহজ পাসওয়ার্ড দিয়ে থাকলে এ পদ্ধতিতে একাউন্ট হ্যাক হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি থাকে।

Brute Force Attack থেকে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট নিরাপদ রাখার উপায়

  • দীর্ঘ এবং জটিল পাসওয়ার্ড ব্যবহার করুন।
  • সহজ এবং দুর্বল পাসওয়ার্ড কখনোই ব্যবহার করবেন না।
  • ইউনিক পাসওয়ার্ড ব্যবহার করুন।
  • পাসওয়ার্ডে স্পেশাল ক্যারেক্টার (@#+()*!?:;$&/) ব্যবহার করুন।
  • নিজের নামে পাসওয়ার্ড তৈরি পরিহার করুন।

2. Facebook Phishing (ফেসবুক ফিশিং)

ফেসবুক ফিশিং - ফেসবুক আইডি হ্যাক করার নিয়ম

আগেকার সময়ে phishing এর মাধ্যমে ফেসবুক আইডি হ্যাক করা অনেক সহজ ছিল। কিন্তু এখন মানুষের সচেতনতার কারণে ফিশিং পদ্ধতির মাধ্যমে সহজে হ্যাকিং করা সম্ভব নয়।

তবে ভুলবশত এ পদ্ধতিতে হ্যাকার আপনার পাসওয়ার্ড হাতিয়ে নিতে পারে। ফিশিং প্রক্রিয়াটি হলো এরকম যে, হ্যাকার একটি phishing website তৈরি করে যেটি দেখতে একদম ফেসবুক এর মতো, ভালোভাবে না দেখলে অথবা এড্রেস বারে ইউআরএল এর দিকে লক্ষ্য না রাখলে কোনোভাবেই বোঝা সম্ভব হবে না যে এটি একটি ফিশিং সাইট, ফেসবুক নয়।

অর্থাৎ হুবহু ফেসবুক লগইন পেজের মত একটি পেজ হ্যাকার তৈরি করে থাকে। তারপর সেই লিংক ভিক্টিমকে বা যার ফেসবুক আইডি হ্যাক করতে চায় তাকে অন্য কোন উপায়ে পাঠিয়ে থাকে।

যেমন কোন কিছুর লোভ দেখিয়ে সেই লিংকে ক্লিক করে ফেসবুকে লগইন (login) করতে বলা হয়। আর সেই লিংকে ক্লিক করে আপনার ফেসবুক একাউন্টের ইমেইল ও পাসওয়ার্ড প্রবেশ করালে সাথে সাথেই আপনার পাসওয়ার্ড চলে যাবে সেই হ্যাকারের হাতে এবং আপনার অ্যাকাউন্টটি হ্যাক হয়ে যাবে।

তাহলে ফিশিং পদ্ধতিতে ফেসবুক আইডি হ্যাক করা যায় তার জন্য আপনার অনেক ভালো দক্ষতা থাকতে হবে প্রোগ্রামিং এর বিষয়ে।

Facebook ফিশিং থেকে অ্যাকাউন্টটি সুরক্ষিত রাখার উপায়

  • আপনার ইমেইলে আসা সন্দেহজনক কোন লিংকে ক্লিক করা থেকে বিরত থাকুন।
  • www.facebook.com ছাড়া অন্য কোন লিংক দেখলে কখনোই আপনার ইউজার নেম এবং পাসওয়ার্ড প্রবেশ করাবেন না।

ফেসবুক একাউন্ট হ্যাক না হওয়ার উপায়

ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক করার সহজ উপায়

ফেসবুক অ্যাকাউন্ট কোন কোন পদ্ধতিতে হ্যাক হয় সেসব বিষয়ে আমি উপরে বলে দিয়েছি এবং হ্যাকিং থেকে আপনার একাউন্ট কে সুরক্ষিত রাখার উপায় আলোচনা করেছি।

তবে আপনার ফেসবুক আইডির অধিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য Settings থেকে Two step verification security system টি অন করতে পারেন।

এটা অন রাখলে আপনার পাসওয়ার্ড জেনে গেলেও কেউ আপনার একাউন্টে প্রবেশ করতে পারবে না। কারণ এক্ষেত্রে আপনার ভেরিফিকেশন কোডের প্রয়োজন হবে যেটা প্রতিবার লগইনের সময় আপনার সিমে এসএমএস করে পাঠানো হবে।

আমার শেষ কথা

FB ID Hack Korar Sohoj Upay এ বিষয়ে আশা করি আজকের আর্টিকেলে আপনারা জানতে পেরেছেন। আর ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক করা সহজ কাজ নাকি কঠিন কাজ এ বিষয়েও আশা করি বুঝতে পেরেছেন।

যদি আর্টিকেলটি ভালো লেগে থাকে তাহলে সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করবেন।

আর আর্টিকেলের সাথে জড়িত কোন প্রশ্ন থাকলে অবশ্যই নিচে কমেন্ট জানিয়ে দিবেন।

About Author

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *